কাপ্তাইয়ে প্রাইভেট না পড়ার দরুন এক শিক্ষার্থীকে বেদম প্রহার

কবির হোসেন, কাপ্তাই: কাপ্তাই কর্ণফুলী পানি বিদ্যুৎ কেন্দ্র (বিউবো) বিদ্যালয়ের শিক্ষকের নিকট প্রাইভেট না পড়ার দরুন ৯ম শ্রেণীর এক মেধাবী ছাত্রীকেbadam স্টিলের স্কেল দিয়ে বেদম প্রহার করার লিখিত অভিযোগ পাওয়া গেছে। বিচার ও শাস্তির দাবিতে ক্ষিপ্ত হয়ে উঠেছে শিক্ষার্থী, অভিভাবক ও সচেতনজনগণ। অভিভাবকের অভিযোগ পত্রে জানা যায় যে ঐ পাষান্ড সহকারী শিক্ষক কবির হোসেনের নিকট নবম শ্রেণীর মেধাবী ছাত্রী ও ৮ম শ্রেণীর বিদ্যালয়ের জিপিএ-৫, প্রাপ্ত শিক্ষার্থী সুমাইয়া ইয়াসমিন (ঐশি)কে ক্লাশ চলাকালিন সময়ে প্রাইভেট না পড়ার দরুন ক্ষিপ্ত হয়ে স্টিলের স্কেল দিয়ে শিক্ষক বেদম প্রহর করে শরীরের বিভিন্ন স্থানে আঘাত করে বলে জানা যায়। ঐ শিক্ষার্থীকে হরহামেশা ক্রুটির কারণে প্রায় মানসিক নির্যাতন ও হেয় প্রতিপন্ন সহ পরীক্ষার সময় দেখে নিবে বলে হুমকি দেওয়ার অভিযোগ পাওয়া গেছে। উক্ত শিক্ষকের অনেক অনিয়মের বিরুদ্ধে এলাকার একাধিক অভিভাবক অভিযোগ করেন। এদিকে শিক্ষার্থীকে এভাবে মারার দায়ে বিদ্যালয়ের শিক্ষক, অভিভাবক ও সচেতন মহল ক্ষিপ্ত হয়ে উঠেছে শাস্তির দাবিতে। বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক কামাল উদ্দীনকে এ ব্যাপারে জানতে চাইলে তিনি ঘটনার সত্যতা স্বীকার করেন এবং প্রতিনিধিকে বলেন, ঐ শিক্ষকের অনিয়মের কারণে তাঁর ৮টি ক্লাশ কেটে ২টি দেওয়া হয় এবং ৯ম শ্রেণীর শিক্ষক থেকে তাঁকে ৮ম শ্রেণীতে পড়ানোর দায়িত্ব দেওয়া হয়। (মঙ্গলবার) ঐ শিক্ষকের নিকট থেকে শাস্তি মূলক বাকি দুটি ক্লাশও কেটে নেওয়া হবে বলে উল্লেখ করেন।
এদিকে বিউবো কাপ্তাই শাখার শ্রমিক লীগ সভাপতি ও অভিভাক তাজুল ইসলাম, সাধারণ সম্পাদক আব্দুল ওহাব এর নিকট জানতে চাইলে তাঁরা বলেন, শিক্ষক যে কাজটি করেছে তা অবশ্যই অন্যায় ক্ষমার অযোগ্য। এ মন মানসিকতা নিয়ে শিক্ষার্থীদের কোন শিক্ষক পাঠ দান করতে পাড়ে না। অভিযুক্ত শিক্ষক এর সাথে কথা বললে তিনি তাঁর এ ধরনের কাজ করা ঠিক হয়নি বলে মন্তব্য করেন। ঐশির মা জোসনা বেগম ঐ পাষান্ড শিক্ষকের বদলি ও বিচার চেয়ে (মঙ্গলবার) কাপ্তাই বিউবো ব্যবস্থাপকের নিকট একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন।

Leave a Reply

%d bloggers like this: