কর্মজীবী পুরুষদের জন্য দুঃসংবাদ!

নিউজগার্ডেন ডেস্ক, ২১ জানুয়ারী ২০১৭, শনিবার: কর্মজীবী মানুষদের বিশেষ করে পুরুষদের জন্য দুঃসংবাদ! দীর্ঘদিন ধরে কাজ সংক্রান্ত মানসিক চাপে ডুবে থাকা আপনার জন্য ক্যান্সারের কারণ হয়ে দাঁড়াতে পারে।
কর্মজীবী পুরুষদের মাঝে যারা ১৫-৩০ বছরের বেশি সময় ধরে নানান ধরনের কাজের চাপে ভুগছেন তাদের মধ্যে বেশির ভাগেরই ক্যান্সার হওয়ার আশঙ্কা অনেক বেশি।
প্রিভেন্টিভ মেডিসিনের প্রকাশিত একটি প্রতিবেদনের মতে, কাজ সংক্রান্ত মানসিক চাপ পুরুষের ফুসফুস, কোলন, রেক্টাম, স্টোমাক ক্যান্সার এবং নন-হজকিন লিম্ফোমার ঝুঁকি বহুগুণে বাড়িয়ে দেয়।
আইএনআরএস ও কানাডার ডে মন্টিরেলের একদল গবেষকদের সম্মিলিত এক গবেষণায় তারা ক্যান্সার ও পুরুষদের মাঝে যারা নিজেদের কাজ নিয়ে মানসিক চাপে রয়েছেন তাদের মাঝে যোগসূত্র খুঁজে পেয়েছেন।
এই গবেষণায় যারা অংশগ্রহণ করেছিল তারা প্রত্যেকেই গড়ে ৪টি চাকরি করেন, তাদের মধ্যে অনেকে আছে যারা এর চেয়েও বেশি চাকরি করেন।
তবে যারা ১৫ বছরের কম সময় ধরে কাজের চাপে ভুগছেন তাদের মাঝে ক্যান্সারের কোন লক্ষণ খুঁজে পাওয়া যায়নি।
এই গবেষণায় ১১টি ক্যান্সারের মধ্যে ৫টি ক্যান্সারের উল্লেখযোগ্য যোগসূত্র পাওয়া গেছে। সবচেয়ে বেশি মানসিক চাপযুক্ত চাকরিগুলো হচ্ছে; দমকল কর্মী, ইন্ডাস্ট্রিয়াল ইঞ্জিনিয়ার, মেকানিক ফোরম্যান, যানবাহন যন্ত্রপাতি মেরেমত কর্মী।
গবেষণায় আরো দেখা যায় যে, মানসিক চাপ কখনো কাজের চাহিদা ও সময়ের মাঝে সীমাবদ্ধ থাকে না।
গবেষকরা বলেন, “আমাদের গবেষণায় বিভিন্ন দিক থেকে একজন ব্যক্তির কর্মজীবনের কাজের চাপ পরিমাপ করার গুরুত্বটা দেখানো হয়েছে।”
এই গবেষণায় অংশগ্রহণকারীরা মানসিক চাপের জন্য দায়ী যে বিষয়গুলো তার তালিকা তৈরি করেছেন। এই তালিকায় রয়েছে গ্রাহক সেবা, সেলস কমিশন, দায়িত্ব, চাকুরীর অনিশ্চয়তা, অর্থনৈতিক সমস্যা, প্রতিকুল কাজের পরিবেশ, কর্মচারী তত্বাবধায়ন, সহকর্মীদের উদ্বিগ্ন মেজাজ, সহকর্মীর সাথে দ্বন্দ্ব, মনোমালিন্য ইত্যাদি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*