কমিশনার চট্টগ্রামের সাথে বিজিএমইএ’র মতবিনিময়

নিউজগার্ডেন ডেস্ক : গতকাল বৃহস্পতিবার দুপুর ১২ টায় কমিশনার, কাস্টম এক্সাইজ ও ভ্যাটPhoto 26_02_2015 কমিশনারেট চট্টগ্রাম, জামাল হোসেনের সাথে বিজিএমইএ’র নেতৃবৃন্দের এক মতবিনিময় সভা ভ্যাট কমিশনারেট কার্যালয়ের সম্মেলন কক্ষ “সৈকত”-এ অনুষ্ঠিত হয়। সভায় বিজিএমইএ’র নেতৃবৃন্দ বলেন, চলমান রাজনৈতিক অস্থিরতার কারণে যথাসময়ে রপ্তানীতে ব্যর্থ হয়ে বিদেশী ক্রেতা কর্তৃক অর্ডার বাতিলসহ বর্তমানে কঠিন সময় অতিক্রম করছে পোশাক শিল্প। এছাড়াও পোশাক শিল্প প্রতিষ্ঠান সমূহের ইঁরষফরহম ঝধভবঃু বিষয়ে অপপড়ৎফ ও অষষরধহপব পরিদর্শন টিম কর্তৃক চিহ্নিত ক্রুটিপূর্ণ পোশাক শিল্প প্রতিষ্ঠান সমূহ, কলকারখানা অধিদপ্তর কর্তৃক তাৎক্ষনিকভাবে বন্ধ করে দেওয়া হচ্ছে। এমনিতেই গ্যাস, বিদ্যুৎ সংকট সহ অবকাঠামোগত বিভিন্ন সমস্যার কারণে চট্টগ্রামস্থ পোশাক শিল্প প্রতিষ্ঠান সমূহে অর্ডার স্বল্পতা বিরাজমান। বর্তমান এই সংকটময় সময়ে ভ্যাট কমিশনারেট কর্তৃক উৎসে মূসক কর কর্তন থেকে অব্যাহতি প্রদানের জন্য বিষয়টি বিজিএমইএ জাতীয় রাজস্ব বোর্ডে উপস্থাপন করেছে। এ প্রেক্ষিতে চট্টগ্রামস্থ পোশাক শিল্প সংশ্লিষ্ট সেবা খাতে উৎসে মূসক কর আদায় কার্যক্রম সাময়িকভাবে বন্ধ রাখার জন্য কমিশনারকে অনুরোধ করেন নেতৃবৃন্দ। কমিশনার, কাস্টমস্ এক্সাইজ ও ভ্যাট কমিশনারেট, চট্টগ্রাম জামাল হোসেন জাতীয় আর্থ-সমাজিক উন্নয়নে পোশাক শিল্পের ভূমিকা প্রশংসা করে বর্তমান সংকটময় পরিস্থিতি বিবেচনায় উৎসে মূসক কর আদায়ে নমনীয় ভাব পোষণ করা হবে মর্মে আশ্বস্থ করেন। এছাড়াও জাতীয় রাজস্ব বোর্ড কর্তৃক নির্ধারিত উৎসে মূসক কর কর্তন বিষয়ে পারস্পরিক যোগাযোগ ও সচেতনতা বৃদ্ধির মাধ্যমে রাজস্ব আদায়ে সকলের সহযোগিতা কামনা করেন।
সভায় আরো বক্তব্য রাখেন বিজিএমইএ’র পরিচালক আবদুল ওয়াহাব, অঞ্জন শেখর দাশ, এমডিএম মহিউদ্দিন চৌধুরী, প্রাক্তন প্রথম সহ-সভাপতি ও কাস্টম (বন্ড) বিষয়ক স্থায়ী কমিটির চেয়ারম্যান মইনুদ্দিন আহমেদ (মিন্টু), প্রাক্তন প্রথম সহ-সভাপতি নাসির উদ্দিন চৌধুরী।
সভায় আরো উপস্থিত ছিলেন বিজিএমইএ’র পরিচালক সাব্বির মোস্তফা, প্রাক্তন পরিচালক এ. এম. চৌধুরী সেলিম, বিজিএমইএ’র কাস্টমস কমিটির সদস্য এস.এম. জাহিদ চৌধুরী, এস.এম. আল-মামুন ও পোশাক শিল্পের মালিকবৃন্দ এবং কাস্টমস এক্সাইজ ও ভ্যাট কমিশনারেট এর পক্ষে উপস্থিত ছিলেন অতিরিক্ত কমিশনার কাজী মোস্তাফিজুর রহমান সহ যুগ্ম কমিশনার ও সহকারী কমিশনারবৃন্দ।

Leave a Reply

%d bloggers like this: