কক্সাজারে জাল নোট চক্র ফের তৎপরতা শুরু করেছে

অজিত কুমার দাশ হিমু, কক্সবাজার : কক্সবাজারে জাল নোট ছড়ানো চক্র ফের তৎপরতা শুরু করেছে। আসন্ন রমজানকে সামনে রেখে কক্সবাজারে জাল নোট ছড়িয়েJal Not_29-05-2015 দেওয়ার লক্ষ্য নিয়ে একটি চক্র মাঠে নেমেছে বলে জানা গেছে। পুলিশ মাঝে মধ্যে জাল টাকাসহ এই চক্রের কয়েকজন সদস্যকে আটক করলেও ধরা ছোঁয়ার বাহিরে থাকচ্ছে মুল হোতারা। ফলে বন্ধ করা যাচ্ছে না জেলার বিভিন্ন হাট বাজারে জাল টাকার ব্যবহার। এতে প্রতারিত হচ্ছে ক্ষুদ্র ব্যসায়ী ও ক্রেতারা। স্থানীয় ক্ষুদ্র ব্যবসায়ীরা জানিয়েছেন বেশ কয়েকবার ব্যাংকে টাকা জমা দিতে গিয়ে বিপাকে পড়তে হয়েছে তারা। ৫’শ ও ১ হাজার টাকার জাল নোট ধরা পড়ায় গচ্ছা দিতে হয়েছে ব্যবসায়ীদের। গত কয়েকদিনে কক্সবাজারের বিভিন্ন ব্যাংকে ১ হাজার ও ৫’শ টাকার বেশ কিছু নোট ধরা পড়ে। চকরিয়ার রাজিব ধর ও পটিয়ার জসিম নামে ওই চক্রের দুই সদস্য চট্টগ্রামের বায়েজিদ বোস্তামী থানাধীন আমিন জুট মিলের সামনের একটি হোটেলে অবস্থান করছিল এমন সংবাদের ভিত্তিতে ২৮ মে বৃহস্পতিবার রাত দশটায় সাড়ে ছয় লাখ টাকার জাল নোটসহ আটক করে র‌্যাব-৭ এর সদস্যরা। আটককৃত জাল নোট চক্রের সদস্যরা হচ্ছে রাজিব ধর ও মোহাম্মদ জসিম। চান্দগাও এলাকা বসবাসকারী রাজিবের গ্রামের বাড়ী কক্সবাজারের চকরিয়া উপজেলার দিঘরপানখালী গ্রামে আর জসিমের বাড়ী পটিয়া উপজেলার দক্ষিল হুলাইন গ্রামে। তাদের কাছ থেকে ৬২৮টি এক হাজার টাকার এবং ৪৪টি ৫শ টাকা মূল্য মানের জাল নোট পাওয়া গেছে বলে জানিয়েছেন র‌্যাব-৭ এর মিডিয়া কর্মকর্তা এএসপি সোহেল মাহমুদ। তিনি জানান, এই দুই জন দীর্ঘদিন ধরে চট্টগ্রাম ও কক্সবাজারের বিভিন্ন হাটে বাজারে জাল নোট সরবরাহের সাথে জড়িত। তারা উদ্ধারকৃত ওই জাল নোট গুলি কক্সবাজারের বিভিন্ন জায়গায় ছড়িয়ে দেওয়ার উদ্দেশ্যে মজুদ করছিল। দীর্ঘদিন ধরে আইন শৃংখলা বাহিনীর চোঁখ ফাঁকি দিয়ে তারা এ ব্যবসা চালিয়ে আসছিল বলে অভিযোগ রয়েছে এবং আইনশৃংখলা রক্ষাকারী বাহিনী তাদেরকে বহুদিন ধরে খোঁজ করছিলো বলেও জানান তিনি।

Leave a Reply

%d bloggers like this: