কক্সবাজারে ৩ ডাকাত ধৃত

অজিত কুমার দাশ হিমু, কক্সবাজার : কক্সবাজারের চকরিয়া উপজেলার অভ্যন্তরীণ সড়কে ব্যারিকেড দিয়ে ডাকাতির ঘটনা ঘটেছে। ১৫-১৬ জনের সংঘবদ্ধ সশস্ত্র ডাকাত দল বিভিন্নPic-Chakaria-16-02-15 যানবাহনের যাত্রী ও পথচারীদের পথরোধ করে পিটিয়ে নগদসহ অন্তত ৪ লাখ টাকার মালামাল লুট করেছে। সোমবার ভোর রাতের দিকে চকরিয়া-বাগগুজারা সড়কের আমান পাড়া নামক স্থানে এ ঘটনা ঘটে। ডাকাতির খবর পেয়ে এলাকার লোকজন জড়ো হয়ে ডাকাতদের ধাওয়া করলে ডাকাতের গুলিতে ধাওয়াকারী মৃত আবদুল আজিজের ছেলে আমির হোসেন(৫৫) নামে একজন গুলিবিদ্ধ হয়। এ সময় বিক্ষুব্দ জনতা ক্ষিপ্ত হয়ে ডাকতদের ধাওয়া করে তিন ডাকাতকে আটক করে গণধোলাই দিলে আহত ডাকতদের পুলিশ উদ্ধার করে প্রথমে চকরিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স ও পরে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করে পুলিশ পাহারায় চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে। গণপিটুনিতে আহত হয়ে আটক হওয়া ডাকাতরা হলেন, চকরিয়া কোনাখালী ইউনিয়নের হাকিম পাড়ার জাফর আলমের ছেলে আবদুল জব্বার (৩৫), পূর্ব বড় ভেওলার দিল মোহাম্মদের ছেলে রোকন উদ্দিন (২৫) ও একই ইউনিয়নের সিকদার পাড়ার কাশেম (৩৫)। তাদের কাছ থেকে দুই রাউন্ড তাজা কার্তুজ উদ্ধার হয়েছে। লুন্ঠিত মালামালসহ ডাকাত দলের অন্য সদস্যরা পালিয়ে গেছে। ডাকাতের খপ্পরে পড়া রিক্সা চালক আনোয়ার বলেন, দিনভর রিক্সা চালিয়ে ২৪০ টাকা রোজাগার করেছিলাম। ডাকাতরা আমাকে মারধরের পর বেঁধে রেখে ওই টাকা ছিনিয়ে নেয়ায় স্ত্রী-সন্তাকে উপস থাকতে হবে। আমার মতো আরো ৬ জন রিক্সা চালকসহ ১১ জনকে পরনের কাপড় দিয়ে বেঁধে রাস্তার পাশে রেখে যাত্রী ও অপরাপার পথচারীদের সর্বস্ব লুট করে ডাকাতরা চকরিয়া থানার অফিসার ইনচার্জ প্রভাষ চন্দ্র ধর বলেন, জনতা পিটুনি দিয়ে আহত অবস্থায় ডাকাতদের পুলিশের কাছে সোপর্দ করেছে তাদের চিকিৎসার জন্য চমেক হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

Leave a Reply

%d bloggers like this: