কক্সবাজারে নতুন অফিস বাজার বণিক সমিতির নির্বাচনে প্রার্থীরা আতংকে

অজিত কুমার দাশ হিমু, কক্সবাজার : কক্সবাজার সদর উপজেলার ইসলামপুর নতুন অফিস বাজারcoks বণিক ও মালিক সমিতির নির্বাচনে বিভিন্ন পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতাকারী প্রার্থীরা চরম উৎকন্ঠা আর আতংকের মধ্যে পড়ে গেছেন। একটি কুচক্রি মহল নির্বাচন বানচাল, স্থগিত করা ও ২মার্চ নির্বাচনের দিন ভোট কেন্দ্রে নাশকতা করার হুমকির ঘটনায় এ অবস্থার সৃষ্টি হয়েছে। এর পরেও প্রার্থীদের পোষ্টার, ব্যানার, ফেস্টুন, লিফলেটে চেয়ে গেছে পুরো নতুন অফিস বাজার সহ আশে পাশের এলাকা। প্রার্থীরা দিনরাত ভোটারদের দ্বারে দ্বারে গিয়ে ভোট প্রার্থনা ও দোয়া কামনা করছেন। ভোর থেকে গভীর রাত পর্যন্ত চলছে এ প্রচারনা। জানা যায়, সদর উপজেলার ইসলামপুর নতুন অফিস বাজার বণিক ও মালিক সমিতি নির্বাচন গত ২০০৬ সালে অনুষ্ঠিত হয়েছিল। বিভিন্ন জঠিলতা ও সভাপতির মৃত্যুর কারণ সহ বিভিন্ন ইস্যু নিয়ে অর্ধযুগের বেশী সময় ধরে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়নি। স্থানীয় ব্যবসায়ী ও মালিকদের আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে কক্সবাজার সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সমিতির নির্বাচন সম্পন্ন করার লক্ষ্যে একটি নির্বাচন পরিচালনা কমিটি গঠন করে দেন। উক্ত কমিটির প্রধান নির্বাচন কর্মকর্তা করা হয় স্থানীয় চেয়ারম্যান মাষ্টার আবদুল কাদেরকে। ৯ সদস্যের কমিটিতে অন্যান্যরা হলেন, ডাঃ রমিজ আহমদ নূরী, এম. মঞ্জুর আলম, নুরুল আমিন, ফরিদুল আজিম দাদা, ছৈয়দ আলম, সাবেক মেম্বার ছগির আহমদ, সাবেক মেম্বার জালাল আহমদ ও সাবেক মেম্বার নুরুল ইসলাম। নির্বাচনে ঘোষিত তফসিল অনুযায়ী মনোনয়নপত্র সংগ্রহ, দাখিল, মনোনয়ন পত্র বাছাই, মনোনয়ন প্রত্যাহার ও প্রতীক বরাদ্দ প্রক্রিয়া সম্পন্ন হয়। আগামী ২মার্চ নির্বাচন অনুষ্ঠানের দিন ধার্য করা হয়। নির্বাচনে সভাপতি পদে জাফর আলম (চাকা), আলী আকবর সওদাগর (ছাতা), নুরুল আমিন (আনারস), সহ-সভাপতি পদে দিল মোহাম্মদ সওদাগর (মোটর সাইকেল), ফরিদ আহমদ (চেয়ার), মোঃ ইলিয়াছ (হারিকেন), মুসলিম উদ্দিন (দেয়াল ঘড়ি), সাধারণ সম্পাদক পদে ছৈয়দ আহমদ (মাছ), ওসমান আলী মোর্শেদ (খেজুর গাছ), কোষাধ্যক্ষ পদে নুরুন্নবী (তালা চাবি), রমজান আলী (বই), রেজাউল করিম (মোরগ), দপ্তর সম্পাদক পদে ইমদাদুল ইসলাম জিহাদী (রিক্সা), ওসমান সরওয়ার (পদ্মফুল), সালাউদ্দিন (জাহাজ), আক্তার কামাল (ফুটবল)। ৬টি সদস্য পদে মনু আলম বাবুল (কলসি) , নুরুল আমিন (আম), আমানুল হক (সাইকেল), নুরুল হুদা (টিউবওয়েল), ছৈয়দুল হক (টেলিফোন), মোঃ মামুন (মই), ওবাইদুল হাকিম (হরিণ) ও শফিউল আলম (গরুর গাড়ী), প্রতিক নিয়ে প্রতিদ্বন্ধিতা করছেন। আগামী ২মার্চ অনুষ্ঠিতব্য নির্বাচন নিয়ে প্রার্থীরা ইতিমধ্যে পোষ্টার, ব্যানার, ফেস্টুন, লিফলেটে চেয়ে গেছে পুরো নতুন অফিস বাজার সহ আশে পাশের এলাকা। প্রার্থীরা দিনরাত ভোটারদের দ্বারে দ্বারে গিয়ে ভোট প্রার্থনা ও দোয়া কামনা করছেন। ভোর থেকে গভীর রাত পর্যন্ত চলছে এ প্রচারনা। এদিকে বিভিন্ন প্রার্থী ও ভোটারদের সূত্রে প্রাপ্ত অভিযোগে জানা গেছে, একটি কুচক্রি মহল নির্বাচন বানচাল, স্থগিত করা ও ২মার্চ নির্বাচনের দিন ভোট কেন্দ্রে নাশকতা করার হুমকির ঘটনা নিয়ে প্রার্থী ও ভোটারদের মাঝে চরম আতংক ও উৎকন্ঠার সৃষ্টি হয়েছে। এরপরেও প্রার্থীরা প্রচারনা অব্যাহত রেখেছে। এ বিষয়ে আইন প্রয়োগকারী সংস্থার নিকটও বিষয়টি জনানো হয়েছে বলে জানা যায়। কয়েকজন প্রার্থী জানান, ইতিমধ্যে তারা জমজমাট ভাবে প্রচার প্রচরনা চালিয়ে যাচ্ছে। ভোটারেরাও উন্মুখ হয়ে আছেন ভবিষ্যত কান্ডারীদের নিবাচিত করার জন্য। নির্বাচন উপলক্ষে সব প্রস্তুতি সম্পন্ন করেছেন নির্বাচন কমিশন। আগামী শনিবার ২৮ফেব্র“য়ারী রাত থেকে প্রার্থীরাও তাদের নির্বাচনী প্রস্তুত শেষ করবেন। নির্বাচন কমিশনার সূত্রে জানা গেছে, নতুন অফিস বাজার বনিক ও মালিক সমিতির নির্বাচনে ভোট গ্রহনকে স্থানীয় ব্যবসায়ী, মালিক সমিতি ও প্রশাসন অত্যন্ত গুরুত্বের সঙ্গে দেখছেন। কোন ধরনের অনিয়ম ও বিশৃংখলা ছাড়াই নির্বাচন সম্পন্নের জন্য উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের নির্দেশনা রয়েছে। তাই ভোট কেন্দ্রে প্রয়োজন মত আইন শৃংখলা বাহিনীর সদস্যরা নিয়োজিত থাকবেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*