এরশাদের ট্রাস্ট গঠন

নিউজগার্ডেন ডেস্ক, ৮ এপ্রিল ২০১৯ ইংরেজী, সোমবার: জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান হুসেইন মুহাম্মদ এরশাদ একটি ট্রাস্ট গঠন করে তার সব স্থাবর ও অস্থাবর সম্পদ তাতে দান করেছেন। রবিবার বিকালে নিজেসহ পাঁচজনকে নিয়ে গঠন করা ওই ট্রাস্টের নামে এসব সম্পদ দান করেন ৯০ বছর বয়সী এ রাজনীতিবিদ। জাপার প্রেসিডিয়াম সদস্য এস এম ফয়সাল চিশতি বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। তিনি বলেন, ‘বিকাল সাড়ে চারটার দিকে বারিধারার বাসায় এরশাদ তার ব্যক্তিগত আইনজীবী শেখ সিরাজুল ইসলামের ব্যবস্থাপনায় সব স্থাবর-অস্থাবর সম্পত্তি নিয়ে ট্রাস্ট গঠন করেন। এ ট্রাস্টে এরশাদসহ পাঁচজন রয়েছেন।’ তবে এর নাম কি দেওয়া হয়েছে তা নিশ্চিত করে বলতে পারেনি তিনি। দলের গুরুত্বপূর্ণ পদে থাকা স্ত্রী রওশন এরশাদ ও ভাই জিএম কাদেরকে ট্রাস্টি বোর্ডে রাখেননি এরশাদ। এরশাদ ছাড়া বোর্ডের অন্য সদস্যরা হলেন- এরশাদের ছেলে এরিক এরশাদ, একান্ত সচিব মেজর (অব.) খালেদ আক্তার, চাচাতো ভাই মুকুল ও তার ব্যক্তিগত কর্মকর্তা মোহাম্মদ জাহাঙ্গীর। ট্রাস্টের সম্পত্তির মধ্যে রয়েছে- এরশাদের বারিধারার প্রেসিডেন্ট পার্কের বাসা, গুলশানের দুটি ফ্ল্যাট, বাংলামোটরের দোকান, রংপুরের কোল্ড স্টোরেজ, পল্লী নিবাস, রংপুরে জাতীয় পার্টির কার্যালয়, ১০ কোটি টাকার ব্যাংক ফিক্সড ডিপোজিট। বেশ কিছুদিন ধরে শারীরিকভাবে অসুস্থ এরশাদ গত ৩০ ডিসেম্বরের একাদশ সংসদ নির্বাচনে এক দিনও প্রচারে যাননি। নির্বাচনের আগে চিকিত্সার জন্য সিঙ্গাপুরে গিয়েছিলেন তিনি। সেখান থেকে ফেরার পর নির্বাচনের দিন ভোট দিতেও নির্বাচনী এলাকা রংপুরে যাননি এরশাদ। গত ৬ জানুয়ারি আইন প্রণেতা হিসেবে শপথ নেন এরশাদ, তবে তিনি সংসদে গিয়েছিলেন হুইলচেয়ারে চড়ে। এরপর ২০ জানুয়ারি আবার সিঙ্গাপুর গিয়েছিলেন এরশাদ। তখন জাতীয় পার্টির পক্ষ থেকে জানানো হয়েছিল, রক্তে হিমোগ্লোবিন ও লিভারের সমস্যায় ভুগছেন তিনি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*