এরকম ছবি হাজার জনের সাথে আছে: পরীমণি

নিউজগার্ডেন ডেস্ক, ১ ফেব্র“য়ারী: হাজার জনের সঙ্গে নিজের ঘনিষ্ট ছবি আছে বলে জানিয়েছেন ঢাকাই ছবির নায়িকা পরীমণি। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে এক যুবকের সঙ্গে ঘনিষ্ট ছবি প্রকাশ হওয়ার প্রতিক্রিয়ায় এ তথ্য জানান তিনি। রবিবার সকালে অনিক আব্রাহাম নামে একটি আইডি থেকে ‘পরী মণির কিছু ছবি’ শেয়ার করা হয়। ছবিগুলো প্রকাশের পর অনিক দাবি করেন, পরী তাঁর বন্ধু ইসমাইলের স্ত্রী।
অনিক ছবিগুলো শেয়ার করে লেখেন, ‘আমার বন্ধু ইসমাইল আর তার স্ত্রী স্মৃতিমণি যে আজ বাংলা চলচ্চিত্রের আলোচিত নায়িকা পরী মণি একসময় ভোলা সদরেই থাকত তার জামাইবাড়িতে। তারপর তার নেশা গেল অর্থ আর লোভ-লালসার দিকে। যার জন্য আমার সহজ-সরল বন্ধুকে ত্যাগ করতেও দ্বিধাবোধ করল না। যাই হোক, ছবিগুলো দেখে পুরোনো দিনের কথা মনে পড়ে গেporimoniল। তাই সবার সাথে একটু শেয়ার করলাম।’
এই স্ট্যাটাসটি সামাজিক মাধ্যম ও অনলাইন নিউজ পেপারে ছড়িয়ে পড়লে বিকালে নিজের ভেরিফায়েড ফেসবুক পেজে একটি স্ট্যাটাসে পরী মণি ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়া জানান। পরী মণি লেখেন, ‘দুঃখ পেলেও বলতে বাধ্য হচ্ছি, ভাবখানা এমন যে আমার সেক্স ভিডিও পেয়ে গেছেন! আরে ভাই, এ রকম ছবি আমার হাজারজনের সাথে আছে। তার মানে এই না যে সেই হাজারজন আমার জামাই লাগে। আর কী এমন ছবিখানা পাইছেন যেইখানা নিয়া এত্তো লাফালাফি শুরু কইরা দিছেন? ছবিতে কি আমি বউ সেজে বাসরঘরে বসে আছি? না আমি নেংটা হয়ে দাঁড়াই আছি, কোনটা?
‘এ রকম ছবি তো আপনারা যাঁরা আজ এই নিউজ করছেন, আপনাদের সাথেও আছে। যেটা এই ছবির তুলনায় অনেক বেশি কাছাকাছি। তাহলে আপনারা সবগুলাই আমার জামাই।’ ‘যে বা যাঁরা আমার ক্ষতি করবেন বলে এসব করছেন তাঁদেরকে বলছি, আমার ক্ষতি না বরং আপনাদের মূল্যবান সময় নষ্ট করছেন।’ ‘প্রকৃত সাংবাদিকদের প্রতি সম্মান রেখে বলছি, আপনারা দয়া করে ভিত্তিহীন খবর প্রকাশ করবেন না।’
এই স্ট্যাটাস দেওয়ার ঘণ্টাখানেক পর অবশ্য পরী মণি সেটি ডিলিট করে দেন। কিন্তু ততক্ষণে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমের অন্যতম আলোচিত বিষয় হয়ে যায় তাঁর এই স্ট্যাটাস। অনেকেই তাঁর এই স্ট্যাটাসের স্ক্রিনশট পোস্ট করে একজন শিল্পির সামাজিক দায়বদ্ধতা নিয়ে প্রশ্ন তোলেন। প্রসঙ্গত, পরী মণি অভিনীত ‘পুড়ে যায় মন’ চলচ্চিত্রটি গত ২৯ জানুয়ারি সারা দেশে মুক্তি পেয়েছে। অপূর্ব রানা পরিচালিত এ চলচ্চিত্রে পরীর বিপরীতে অভিনয় করেছেন চিত্রনায়ক সাইমন সাদিক। সূত্র: ঢাকাটাইমস

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*