এক অর্পিত সম্পত্তির অবমুক্তি বিষয়ে বিচারাধীন মামলার উকিলনোটিশ

নিউজগার্ডেন ডেস্ক, ১১ এপ্রিল ২০১৯ ইংরেজী, বৃহস্পতিবার: বোয়ালখালীর শ্রীপুর বৈদ্যবাড়ীর এক অর্পিত সম্পত্তির অবমুক্তি চেয়ে বাদীদের দায়ের করা এক মামলার জবাব চেয়ে সরকারী বিবাদীদের কাছে নোটিশ পাঠানোর জন্য চট্টগ্রাম জেলার পটিয়া অর্পিত সম্পত্তি প্রত্যর্পণ অতিরিক্ত ট্রাইব্যুনালের বিচারক আগামী আদেশ দেওয়ার কোনো ধার্য্য তারিখের আগে বাদীদের উকিল মামলাটির পরিচালনার ব্যাপারে যথাসময়ে যোগাযোগ রাখার অনুরোধ জানিয়ে বাদীদের ৭ জনের কাছে ডাকযোগে উকিলনোটিশ পাঠিয়েছেন। জানা যায়, বৈদ্যবাড়ীর সেনবংশীয় মূল মালিকের পারিবারিক শালেগ্রাম বিগ্রহের সেবা ও সম্পত্তির সংরক্ষণে কোনো ক্ষতিসাধন হলে সেজন্য কোনো অযোগ্যতার মাধ্যমে ব্যর্থতার দায়ে যথাযোগ্য শাস্তি পেতে বাধ্য থাকার বিভিন্ন শর্তাদি পালনের চুক্তিতে রাজী থাকার লিখিতসম্মতনামা হিসেবে হিন্দুধর্মীয় এক সেবায়েতনামা উক্ত সেনবংশের রাস বিহারী সেন ও তৎস্ত্রী প্রীতি রানী সেন ১২ এপ্রিল ১৯৬১ ইং বৈদ্যবাড়ীর গৌরী চরণ দে’র সহোদর দু’জন পুত্রের মধ্যে নবীন চন্দ্র দে’র নাম উল্লেখ ছাড়া শুধু গিরিশ চন্দ্র দে’র নামেই হস্তান্তর করেন। পরবর্তীতে উক্ত সেবায়েতনামা বা সম্মতনামাটি মূল মালিকের বিভিন্ন পর্যায়ের সম্পত্তির স্বার্থাধিকারসংজ্ঞা সূত্রে প্রামাণ্য উওরাধিকারের যৌক্তিকতা নামক ভিত্তি হিসেবে উক্ত ভারতবাসী সেনবংশের এক অর্পিত সম্পত্তির অবমুক্তি চেয়ে বৈদ্যবাড়ীর ৭ জন বাসিন্দা বাদী হয়ে ১০৮৪৯/ ২০১২ ইং নং এক অর্পিত সম্পত্তি প্রত্যর্পণ মামলা দায়ের করেন বলেও জানা যায়। এ সম্পর্কে ২৫ ফেরুয়ারী ২০১৫ ইং স্থানীয় newsgarden24.com মুক্তমত কলামের এক মুক্তমত খবরসহ মার্চ ২০১৮ ইং স্থানীয় সনাতনী মাসিক জ্যোতির্ময় পত্রিকাসংখ্যার ১০ নং পৃষ্ঠার এক বিজ্ঞপ্তির উল্লেখ রেখে উক্ত বাদীপক্ষের নেপাল দে এক আবেদনের কপি ১৩ মে ২০১৮ ইং চট্টগ্রাম বিভাগীয় কমিশনার ও বোয়ালখালী আমুচিয়া ইউনিয়ন ভূমি সহকারী কর্মকর্তা বরাবর যথাক্রমে ০৭৪ নং ও ০৭৫ নং রেজিস্ট্রী এ/ ডি ডাকযোগে পাঠিয়ে দেন বলে সূত্রে প্রকাশ। এমতাবস্থায় উক্ত মামলার জবাব চেয়ে সরকারী বিবাদীদের কাছে নোটিশ পাঠানোর জন্য আগামীতে বিচারিক আদেশের আগে বাদীদের উকিল মামলা পরিচালনার যোগাযোগ রক্ষার্থে ১ এপ্রিল ২০১৯ ইং বাদীদের মনোরঞ্জন, নেপাল, বাসু, সৃজন, আশীষ, সুভাষ ও কাজল বরাবর রেজিস্ট্রী এ/ ডি ডাকযোগে উকিলনোটিশ পাঠিয়ে দেন বলেও সূত্রে প্রকাশ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*