ঈদ উপলক্ষে ওয়ালটন ব্র্যান্ডের পণ্য ব্যাপক বিক্রি হচ্ছে

নিউজগার্ডেন ডেস্ক, ১ জুলাই: রমজান মাস শেষ হতে আর কয়েকদিন বাকি। এরপরই পবিত্র ঈদ-উল-ফিতর। ঈদ সামনে রেখে সারাদেশে জমে উঠেছে ইলেকট্রনিক্স পণ্যের বাজার। বিশেষ করে ফ্রিজ এবং টিভি বিক্রি হচ্ছে বেশি। বর্তমানে দেশী ব্র্যান্ডের ইলেকট্রনিক্স পণ্যের কদর বেড়েছে। ব্যাপক বিক্রি হচ্ছে ওয়ালটন ব্র্যান্ডের পণ্য। তবে, অন্যান্য বছরের তুলনায় এবার রমজান মাসে রেকর্ড পরিমাণ পণ্য বিক্রি করেছে ওয়ালটন।eid
ওয়ালটন কর্তৃপক্ষ জানায়, গত বছরের জুন মাসের তুলনায় এবার প্রায় ৬৫ শতাংশ বেশি পণ্য বিক্রি করেছে ওয়ালটন। এবারের রোজায় ৪০ শতাংশ বেশি পণ্য বিক্রির লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করেছিল ওয়ালটন। কিন্তু,রোজা শেষ হওয়ার আগেই পণ্য বিক্রির লক্ষ্যমাত্রা ছাড়িয়ে গেছে। গত রমজানের তুলনায় এবার তারা এখন পর্যন্ত প্রায় ৬৫ শতাংশ বেশি পণ্য বিক্রি করেছে।
বিশেষ করে, ফ্রিজ ও এলইডি টেলিভিশন বিক্রিতে ব্যাপক প্রবৃদ্ধি হয়েছে ওয়ালটনের। এছাড়াও, সারা দেশে ব্যাপক হারে বিক্রি হচ্ছে ওয়ালটনের মোবাইল ফোন, এয়ার কন্ডিশনার, ব্লেন্ডার, জুসার, মাইক্রোওয়েভ ওভেন, রিচার্জেবল ফ্যান, টেবিল ও সিলিং ফ্যান, রাইস কুকার, প্রেসারকুকার, এলইডি বাল্ব, লাইট, ইলেকট্রিক সুইচ-সকেটসহ অন্যান্য ইলেকট্রনিক্স ও ইলেকট্রিক্যাল হোম এ্যাপ্লায়েন্স।
সংশ্লিষ্টরা বলছেন, ঈদুল ফিতর উপলক্ষ্যে রোজায় বরাবরই ইলেকট্রনিক্স ও ইলেকট্রিক্যাল পণ্যের বিক্রি বেড়ে যায়। বিশেষত, ফ্রিজ এবং টেলিভিশনের চাহিদা ও বিক্রি বাড়ে অনেকাংশে। অসহনীয় গরম এই চাহিদাকে আরো বাড়িয়ে দিয়েছে। ফলে, রোজায় ওয়ালটন ফ্রিজ ও এসির বিক্রি বেড়েছে উল্লেখযোগ্য হারে। ইদ মানেই বিনোদন। আর তাই বিনোদনের প্রধান মাধ্যম টিভি বিক্রিও হয়েছে রেকর্ড পরিমাণে।
জানা গেছে, উৎপাদনে অত্যাধুনিক প্রযুক্তির ব্যবহার, বিশ্বমান বজায় রাখা, অসংখ্য মডেল ও বৈচিত্র্যময় কালার, সাশ্রয়ী মূল্য, সহজ কিস্তি সুবিধা, দ্রুত ও সর্বোত্তম বিক্রয়োত্তর সেবার নিশ্চিয়তা, দেশব্যাপী বিস্তৃত সেলস ও সাভির্স নেটওয়ার্ক এবং সর্বোপরি স্থানীয় আবহাওয়া উপযোগী করে দেশেই তৈরি হয় বিধায় গ্রাহকদের আস্থা ও বিক্রি বেড়েছে ওয়ালটন পণ্যের।
ওয়ালটনের মার্কেটিং বিভাগের নির্বাহী পরিচালক এমদাদুল হক সরকার বলেন, ঈদ উপলক্ষ্যে সব ধরণের পণ্য আশাতীত বিক্রি হচ্ছে। রোজায় ফ্রিজ বিক্রয়ের লক্ষ্যমাত্রা ছিলো ২ লাখ ইউনিট। কিন্তু, রমজান শেষ হওয়ার আগেই লক্ষ্যমাত্রা ছাড়িয়ে বিক্রি হয়েছে ২ লাখেরও বেশি ফ্রিজ। যেখানে গত রমজানে বিক্রি হয়েছিল প্রায় ১ লাখ ৪০ হাজার ফ্রিজ।
তিনি জানান, ওয়ালটন নো ফ্রস্ট ফ্রিজে বিশ্বের লেটেস্ট প্রযুক্তি ইন্টেলিজেন্ট ইনভার্টার যুক্ত হওয়ায় বিক্রি ব্যাপক বেড়েছে। ফ্রিজের পাশাপাশি লক্ষ্যমাত্রারও কয়েকগুণ বেশি এলইডি টেলিভিশন সেট বিক্রি হয়েছে। গতবারের তুলনায় এবারের রোজায় প্রবৃদ্ধি প্রায় ৩০০ শতাংশ।
ওয়ালটনের নির্বাহী পরিচালক এবং বিপণন বিভাগের প্রধান সমন্বয়ক ইভা রেজওয়ানা বলেন, ঈদ উপলক্ষ্যে নতুন নতুন মডেলের পণ্য বাজারে ছেড়েছে ওয়ালটন। জিরো ইন্টারেস্টে ছয় মাসের সহজ কিস্তিতে পণ্য বিক্রির ঘোষণাও আশাতীত বিক্রি বৃদ্ধিতে ভূমিকা রেখেছে। ফলে স্বল্প আয়ের লোকেরাও এখন ওয়ালটনের প্রযুক্তি পণ্য কিনতে পারছেন। দেশের ইলেকট্রনিক্স পণ্যের সিংহভাগ চাহিদা পূরণ করতে সক্ষম হয়েছে ওয়ালটন।
ওয়ালটন স্মল এ্যাপ্লায়েন্স বিক্রয় ও বিপণন বিভাগের প্রধান মোঃ মুক্তাদির বিল্লাহ বলেন, গতবারের চেয়ে কয়েকগুণ বেশি ইলেকট্রনিক্স ও ইলেকট্রিক্যাল হোম এ্যাপ্লায়েন্স বিক্রি হয়েছে এবারের রোজায়। গ্রাহকদের চাহিদা ও রুচি অনুযায়ী সাশ্রয়ী মূল্যে বিশ্বমান সম্পন্ন প্রায় ৩১ ধরণের হোম এ্যাপ্লায়েন্সের শতাধিক মডেল বাজারজাত করেছে ওয়ালটন।
দেশের ইলেকট্রনিক্স পণ্যের বৃহত্তম বাজার বঙ্গবন্ধু স্টেডিয়াম মার্কেটে আবাবিল ইলেট্রনিক্স এর ম্যানেজার রাজু আহমেদ জানান, এবারের রোজায় সবচেয়ে বেশি বিক্রি হয়েছে ওয়ালটনের পণ্য। বিশেষ করে, বিশ্বমান সম্পন্ন ওয়ালটনের ইন্টেলিজেন্ট ইনভার্টার প্রযুক্তির ফ্রিজ গ্রাহকদের কাছে হট কেকে পরিণত হয়েছে বলে জানান তিনি।
রাজধানীর নয়াপল্টনে ওয়ালটন প্লাজার এ্যাসিস্ট্যান্ট ম্যানেজার মোহাম্মদ কামরুজ্জামান বলেন, রোজার শুরু থেকেই তাদের হোম ও কিচেন এ্যাপ্লায়েন্সেসের বিক্রি অনেক বেড়ে গিয়েছে। বিশেষ করে, নতুন মডেলে ফ্রস্ট ফ্রিজ, ইন্টেলিজেন্ট ইনভার্টার প্রযুক্তির নো-ফ্রস্ট ফ্রিজ, এলইডি টেলিভিশন ও মোবাইল ফোন বিক্রির ধুম পড়েছে।

Leave a Reply

%d bloggers like this: