ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের সমাবেশ আগামী ৯ ডিসেম্বর

নিউজগার্ডেন ডেস্ক, ০৫ ডিসেম্বর, সোমবার: ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ চট্টগ্রাম মহানগর নেতৃবৃন্দ বলেছেন, আরাকানের পবিত্র ভূমিকে মুসলিম জনশূন্য করার মিয়ানমারের বার্মিজ দখলদার-হানাদার মগদস্যুদের অভিলাষ পূর্ণ হবে না ইনশাআল্লাহ। একটি স্বাধীন মুসলিম আরাকানকে দখল করে শতাব্দীকাল থেকে সেখানকার মুসলিমদের ওপর অব্যাহত মানবতাধিকার লঙ্ঘন, গণহত্যা, দর্ষন, লুণ্ঠন, নারী-শিশু ও বৃদ্ধদের নিপীড়ন আর মেনে নেওয়া হবে না। আজ (সোমবার) চট্টগ্রাম দেওয়ানহাটস্থ দলীয় কার্যালয়ে বেলা ৩ ঘটিকা থেকে ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ চট্টগ্রাম মহানগরের উদ্যোগে মিয়ানমার অভিমুখে ১৮ ডিসেম্বরের লংমার্চ প্রস্তুতি সভায় নেতৃবৃন্দ এসব কথা বলেন।1
সভার সভাপতি ইসলামী আন্দোলনের কেন্দ্রীয় নেতা ও নগর সভাপতি আলহাজ জান্নাতুল ইসলাম নেতৃবৃন্দ বলেন, মিয়ানমার একটি অসভ্য দেশ, আইয়ামে জাহিলিয়াতের নিকৃষ্ঠ নমুনা। আন্তর্জাতিক রীতি-নীতি এবং মানবীয় কোনো ধরনের মূল্যবোধ সেখানে চর্চিত হয় না, একটা জঙ্গলি-জানোয়ারদের দেশ। রোহিঙ্গাদেরকে বাঙালি আখ্যায়িত করে মিয়ানমার একটি স্বাধীন সার্বভৌম বাংলাদেশের প্রতি চ্যালেঞ্জ ছুড়েছে। বাংলার জনগণ এর কড়া জবাব দিতে তৈরি আছে উল্লেখ করে নেতৃবৃন্দ বলেন, ইনশাআল্লাহ আরাকানকে মুসলিমশূন্য করার মিয়ানারের দস্যু অভিলাষ পূর্ণ হতে দেবে বাংলার জনগণ। আগামী ১৮ ডিসেম্বর পীর সাহেব চরমোনাইয়ের নেতৃত্বে লংমার্চের মধ্য দিয়ে প্রমাণ করে দেবে বাংলার জনগণ বীরের জাতি।
সভায় আগামী ৯ ডিসেম্বর (শুক্রবার) বাদ জুমা, চট্টগ্রামের আন্দরকিল্লা শাহী জামে মসজিদ চত্বর থেকে আরাকানে রোহিঙ্গা গণহত্যার প্রতিবাদ, রোহিঙ্গাদের নাগরিকত্ব এবং মানবতাবিরোধী অপরাধীদের বিচারের দাবিতে বিক্ষোভ মহাসমাবেশের ডাক দিয়েছে ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ। সভায় উপস্থিত ছিলেন সেক্রেটারি আলহাজ মুহাম্মদ আল-ইকবাল, আলহাজ আবুল কাসেম মাতব্বর, নুরুল ইসলাম বিএসসি, আলহাজ আলী আকবর, অধ্যাপক মাওলানা রফিকুল আলম, মাওলানা দিদারুল মাওলা, ডা. মুহাম্মদ রেজাউল করীম, মাওলানা হাফেজ মুসলেহ উদ্দীন, মু. সগির আহমদ চৌধুরী, তরিকুল ইসলাম, মাওলানা সিরাজুল ইসলাম জিহাদী, কেএম মহিউদ্দীন, মুফতী ইবরাহীম আনোয়ারী প্রমুখ নেতৃবৃন্দ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*