ইন্তেকালকৃত বিএনপি নেতা আমীরের বাসায় মনজুর আলম : সেনা টহলের দাবী

নিউজগার্ডেন ডেস্ক : শুক্রবার সকালে নগরীর উত্তর পাঠানটুলি ওয়ার্ড বিএনপির সাধারন সম্পাদক আমীর হোসেন (৪৮) এর মৃত্যুর খবর শুনে চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে ২০ MANZUR ALAM MORNING PIC-1-24-04-15.docx-1দলীয় জোট সমর্থিত চট্টগ্রাম উন্নয়ন আন্দোলনের প্রার্থী মোহাম্মদ মনজুর আলম শোকাহত পরিবারের সদস্যদের সমবেদনা জানাতে মরহুমের বাড়ীতে ছুটে যান। MANZUR ALAM MORNING PIC-02-24-04-15.docxতিনি শোকাহত পরিবারের সদস্যদের শান্তনা দেন এবং মরহুমের আত্মার মাগফেরাত কামনা করেন। উল্লেখ্য, বিএনপি নেতা আমীর হোসেন গতকাল বৃহস্পতিবার নির্বাচনী গণসংযোগ শেষে রাতে বাড়ী ফিরলে হৃদযন্ত্রের ক্রিয়া বন্ধ হয়ে মৃত্যু বরণ করেন। মৃত্যুকালে তিনি চার মেয়ে, স্ত্রী আত্মীয় স্বজন সহ Photo 101অনেক গুণগ্রাহী রেখে গেছেন। মরহুম আমীর হোসেনের বাসা থেকে বের হয়ে এলে পাঠানটুলি এলাকাবাসী তাকে কাছে পেয়ে উষ্ণ অভ্যর্থনা জানান। মনজুর আলম এসময় এলাকাবাসীর সাথে নির্বাচনের অবস্থা, ভোটের পরিবেশ, আগামীতে নগর ঘিরে তার উন্নয়ন কর্মসূচি ইত্যাদি বিষয়ে কথা বলেন। এসময় মনজুর আলম বলেন-গত সাড়ে চার বছরে নগরবাসী অন্তরে স্থান করে নিয়েছি বলেই তারা আবারো আমাকে নির্বাচনে উৎসাহিত করেছেন, যেখানে যাচ্ছি সেখানকার লোকজন আমাকে বিপুল ভোটে বিজয়ী করার আশ্বাষ দিচ্ছেন। ভোটারেরা নির্বিঘেœ ভোট দিতে পারলে বিপুল ভোটের ব্যবধানে জয়ী হবেন বলে আশা প্রকাশ করেন তিনি। Photo 102মনজুর আলম সেনাবাহিনীকে ভোটের সময় টহলের ব্যবস্থা করতে ইসির প্রতি আবারো অনুরোধ জানিয়ে বলেন-উৎসব মুখর পরিবেশে নির্বাচন হলে জনগণ যাকে রায় দেবেন তিনি তা মেনে নেবেন। তিনি বলেন, গণমানুষের সাথে যাদের কোন সম্পৃক্ততা নেই তারাই অন্যের সমালোচনা করে। বিগত দিনে তারা গণমানুষের সাথে সম্পর্ক উন্নয়ন করতে পারে নাই বলেই আজকে নানা সমালোচনায় লিপ্ত। গত সাড়ে ৪ বছরে নগরবাসীর চাহিদা পূরণ করতে পেরেছি বলেই আজকে তারা আমার কাছে ছুটে আসছে। এসময় ডবলমুরিং থানা বিএনপি’র সভাপতি এস এম সাইফুল আলম, কাউন্সিলর নিয়াজ মোহাম্মদ খান, আবুল হাসেম, হাজী মো. মহসিন, আবদুল হালিম, মাসুদ, ইব্রাহিম, হাসনাত প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন। পরে মেয়র প্রার্থী মনজুর আলম উত্তর কাট্টলী এলাকায় স্থানীয় এক মহিলার জানায়ায় অংশ গ্রহণ করেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*