আ.লীগ কেন সেনা মোতায়েন চায় না, প্রশ্ন শাহ মোয়াজ্জেমের

নিউজগার্ডেন ডেস্ক, ২৫ ডিসেম্বর: বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান শাহ মোয়াজ্জেম হোসেন প্রশ্ন রেখে বলেছেন, ‘পৌর নির্বাচনে আমরা সেনা মোতায়েন চাই আওয়ামী লীগ কেন চায় না? কারণ এখানেই তাদের চাতুরি ধরা পড়ে যাবে।’ তিনি শুক্রবার সকালে জাতীয় প্রেসক্লাবে জাতীয়তাবাদী নাগরিক দলের নবম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর আলোচনা সভায় এ প্রশ্ন রাখেন।s. Hossen
শাহ মোয়াজ্জেম সরকারের প্রতি হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করে বলেন, ‘ভাষা আন্দোলন করেছি, মুক্তিযুদ্ধ করেছি, এবারের পৌর নির্বাচন সুষ্ঠু না হলে প্রয়োজনে দেশ বাঁচানোর জন্য জীবন দিয়ে আন্দোলন করব।’ তিনি বলেন, ‘পুলিশ, নির্বাচন কমিশন বা নির্বাচনের সঙ্গে জড়িত যারা আছে তারা এখন পর্যন্ত বিশ্বাসযোগ্য কোনো পদক্ষেপ গ্রহণ করেনি। সুতরাং আমরা তাদের বিশ্বাস করি না।’
আওয়ামী লীগের উদ্দেশে বিএনপির এই নেতা বলেন, ‘সেনাবাহিনী উপস্থিত থাকলে আপনারা অনেক অপকর্ম করতে পারবেন না। তাই আপনারা সেনাবাহিনীকে বিশ্বাস করতে পারছেন না।’ তিনি বলেন, ‘৫ জানুয়ারির নির্বাচনের মাধ্যমে দেশে জবরদখলকারী সরকার কায়েম হয়েছে। প্রথমে তারা বলেছে এটা নিয়ম রক্ষার নির্বাচন। কিন্তু এখন বলছে ২০১৯ সালের আগে কোনো নির্বাচন হবে না।’
প্রধানমন্ত্রীকে উদ্দেশ্য করে শাহ মোয়াজ্জেম বলেন, ‘বেগম খালেদা জিয়ার সঙ্গে আপনার (শেখ হাসিনা) কোনো তুলনা হয় না। স্বাধীনতা যুদ্ধের সময় খালেদা জিয়া পাকিস্তানি সেনাবাহিনীর কাছে বন্দী ছিলেন। কিন্তু যুদ্ধে আপনার (শেখ হাসিনা) কোনো অবদান নেই। ওই সময় পাকিস্তানিদের জিপে চড়ে ধানমন্ডি লেকে ঘুরে বেড়িয়েছেন আপনি।’
সুষ্ঠু নির্বাচন না হলে বিএনপি কঠোর আন্দোলনে যাবে বলেও হুমকি দেন তিনি। একই অনুষ্ঠানে বিএনপি নেতা জয়নুল আবেদীন ফারুক প্রধান নির্বাচন কমিশনারকে উদ্দেশ্য করে বলেন, ‘আপনার মার্কা হলো ফ্রগ আর চুড়ি। যদি সুষ্ঠু নির্বাচন করতে না পারেন তবে ফ্রগ আর চুড়ি পরে ঘরে বসে থাকুন।’
আয়োজক সংগঠনের সভাপতি ওমর ফারুক পীর সাহেবের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে আরো বক্তব্য রাখেন- জাগপা সভাপতি শফিউল আলম প্রধান, স্বাধীনতা ফোরামের সভাপতি আবু নাসের মোহাম্মাদ রহমাতুল্লাহ, জাতীয়তাবাদী নাগরিক দলের সাধারণ সম্পাদক জাবেদ ইকবাল, আনোয়ার হোসেন প্রমুখ। সূত্র: শীর্ষ নিউজ

Leave a Reply

%d bloggers like this: