আল-মারচুচ হজ্ব কাফেলাকে হাজী সাহেবানদের সেবায় আস্থা ও সন্তুষ্টি অর্জন করতে : মেয়র

নিউজগার্ডেন ডেস্ক : আল-মারচুচ হজ্ব কাফেলার সাফল্যের এক যুগ পূর্তি উপলক্ষ্যে নতুন ও পুরাতন হাজী সাহেবানদের পুনর্মিলনী ও মেজবান অনুষ্ঠানে চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের মেয়র মোহাম্মদ মনজুর আলম বলেন, অনেক হজ্ব কাফেলা আছে যাদের নিকট গিয়ে মানুষ প্রতারিত হচ্ছে : কিন্তু আল-মারচুচ কাফেলায় মানুষ স্বাচ্ছন্দে হজ করতে পারছে জেনে আমি খুব আনন্দিত। আগামিতে এ প্রতিষ্ঠান দলমত নির্বিশেষে বৈষম্যহীনভাবে সেবা দিয়েই যাবে এ আশা রাখছি। Almarsuu haj kafala-25-12-14মেয়র বলেন, আল্লাহর সৃষ্টির সর্বশ্রেষ্ঠ সৃষ্টি হলো মানব জাতি, যারা আল্লাহর খলিফার দায়িত্ব পালন করেন। সৃষ্টির শ্রেষ্ঠত্ব বজায় রাখা এবং খেলাফতের দায়িত্ব পালনে যোগ্যতা অর্জনের জন্য ইহকালীন এবং পরকালীন জীবনে কোরআনই সর্বোৎকৃষ্ট দিক নির্দেশনা প্রদান করে। তিনি বলেন, আল-মারচুচ হজ্ব কাফেলা হাজী সাহেবানদের সেবায় সার্বিকভাবে দায়িত্ব পালনের মাধ্যমে হাজীদের আস্থা ও সন্তুষ্টি  অর্জনে সক্ষম হবে বলে আশা পোষণ করেন। তিনি আজ ২৫ ডিসেম্বর আনিকা কমিউনিটি সেন্টারে সকাল ১০ টায় চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের আরবী বিভাগের অধ্যাপক ড. মুহাম্মদ নেজাম উদ্দিনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে এ কথা বলেন। অনুষ্ঠানে প্রধান বক্তা আইআইইউসি’র প্রো. ভাইস চ্যান্সেলর প্রফেসর ড. আবু বকর রফীক বলেন প্রত্যেক সামর্থ্যবান মানুষের উপর আল্লাহর ঘরে হজের উদ্দেশ্যে গমন করা একটি অবশ্যম্ভাবী কর্তব্য। যা আল্লাহর বান্দা হিসাবে তার দায়িত্বের অন্তর্ভুক্ত। এ আহবান জাতি, ধর্ম, বর্ণ নির্বিশেষে সকল মানব গোষ্ঠীর প্রতি। অন্তত পক্ষে যারা আল্লাহর অস্তিত্বে বিশ্বাস করে এবং বিশেষভাবে তাদের প্রতি। বিশেষ অতিথির বক্তব্যে চবি আরবী বিভাগের অধ্যাপক ড. আ.ক.ম. আবদুল কাদের বলেন, হজ্ব এমন একটি ইবাদত যার মধ্যে আল্লাহতায়ালা কর্তৃক ফরজকৃত অন্য সকল ইবাদতের প্রতিচ্ছবি বিদ্যমান। বিশেষ অতিথির বক্তব্যে আইআইইউসি’র ইসলামিক ষ্টাডিজ বিভাগের অধ্যাপক ড. এ.বি.এম. মফিজুর রহমান আল-আহজারী বলেন, হজের শিক্ষা ধারণ করে জীবন ধারণ করার গুরুত্ব অপরিসীম। সভাপতির বক্তব্যে ড. মুহাম্মদ নেজাম উদ্দিন বলেন অভিজ্ঞ আলেমদের ছাড়া যথাযথভাবে হজ্ব আদায় করা সম্ভব নয়। অনুষ্ঠানে আরো বিশেষ অতিথি হিসাবে বক্তব্য রাখেন খলিফায়ে গারাঙ্গিয়া আলহাজ্ব শাহ মাওলানা আবদুল হালিম রশিদী, বড় মিয়া মসজিদের খতিব আলহাজ্ব মাওলানা আকতার হোসেন, রসুলাবাদ ফাজিল মাদ্রাসার আরবী প্রভাষক আলহাজ্ব মাওলানা মহিউদ্দিন, চকবাজার বায়তুল মামুর জামে মসজিদের খতীব অধ্যক্ষ মাওলানা মোহাম্মদ মোহছেন আল-হোসাইনী, হাছনদন্ডী এম রহমান সিনিয়র মাদ্রাসার অধ্যক্ষ আমিনুল ইসলাম ছমদি, আজিজুর রহমান হোমিওপ্যাথিক কলেজের সাবেক অধ্যক্ষ ডা. আবুল কালাম আজাদ, অধ্যাপক ডা. এফতেখার উদ্দিন চৌধুরী, উদ্বোধনী বক্তব্য রাখেন আল-মারচুচু হজ্ব কাফেলার ব্যবস্থাপনা পরিচালক আলহাজ্ব মুহাম্মদ মোরশেদুল আলম, অনুষ্ঠান পরিচালনায় ছিলেন চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের আরবি বিভাগের অধ্যাপক ড. আ. ম. কাজী হারুন উর রশীদ। বক্তারা বলেন, হজ্ব আল্লাহ পাকের সান্নিধ্য লাভে এক মহামিলন কেন্দ্র এবং নবী (সা.)-এর উম্মতের জন্য এক দুর্লভ প্রাপ্তি। হজ্ব এবং ওমরাহকারীগণ হচ্ছেন আল্লাহর মেহমান। আল-মারচুচ হজ্ব কাফেলা আল্লাহর মেহমানদেরকে দীর্ঘ এক যুগ ধরে যে সেবা দিয়ে আসছে তা প্রশংসার দাবিদার।

Leave a Reply

%d bloggers like this: