আলী আহমদের ৩দিন রিমান্ড

এম এম রাজা মিয়া রাজু, ২০ জুলাই ২০১৭, বৃহস্পতিবার: মা আনোয়ারা বেগমের প্রেমিকা আলী আহমদের ৩দিন রিমান্ড হয়েছে বলে জানা গেছে। তবে রিমান্ডে পরকীয়া প্রেমের কথা স্বীকার করলে ও হত্যার ঘটনা অস্বীকার করেছে বলে জানান তদন্ত কর্মকর্তা মাহামুমুল করিম। এদিকে ঘটনার দিন সে জনতার কাছে হত্যাকান্ডে জড়িত বলে স্বীকার করেছিল। এখন ঘটনা ভিন্ন খাতে প্রবাহিত করার জন্য অপকৌশল অবলম্বন করেছে। জানা যায় আলী আহমদের সাথে তার প্রেমিকা আনোয়ার মতানৈক্য সৃষ্টি হলে বলির শিকার হয় নিষ্পাপ জিসান। ঘটনার বিবরণে প্রকাশ ঘটনার দিন ছিল ৭জুলাই শুক্রবার। আলী আহমদ শঙ্খনদীতে মাছ ধরতে সাথে নিয়ে যায় মিজানুর রহমান জিসান (৭ ) কে। কিন্তু সে বাড়ী ফিরে আসলে ও জিসান আসেনি। তাকে অনেক খোঁজাখুজির পর না পেয়ে আলী আহমদকে তার কথা জিজ্ঞাসা করলে সে আবোল তাবোল কথা বলতে থাকে। এতে লোকজনের সন্দেহ হলে তখন তাকে উত্তম মাধ্যম দিলে সে অকপটে ঘটনা স্বীকার করে। সে জিসানকে মেরে বাড়ীর পাশে ডোবার পানির নীচে পুতে রাখে। এরপর স্থানীয় লোকজন গণপিটানী দিলে জনৈক মেম্বার তাদের কাছ থেকে তাকে উদ্ধার করে মসজিদে ঢুকিয়ে দরজায় তালা দিয়ে রাখে। তখন তাকে লোকজন ঘিরে রাখে। সংবাদের ভিত্তিতে পুলিশ ঘটনাস্থলে হাজির হয়। তাকে জনতার রোষানল থেকে উদ্ধার গিয়ে পুলিশের সাথে ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া ও সংঘর্ষ হয়। অবস্থা বেগতিক হলে পুলিশ ফাকাঁ গুলি বর্ষণ করে ঘাতক আলী আহমদকে উদ্ধার করে লাশসহ থানায় নিয়ে যায়। এরপর শিশুর পিতা আবুল হাসেম বাদী হয়ে থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। মামলায় আসামী ছিল শুধু আলী আহমদ। পুলিশের সাথে জনতার সৃষ্ট ঘটনায় ও পুলিশ বাদী একটি মামলা দায়ের করে। এই মামলায় ইতিমধ্যে কয়েকজন গ্রেপ্তার হয়েছে বলে যায়। এলাকাবাসী এই হত্যাকান্ডের সুষ্টু বিচার চায় সংশ্লিষ্ট বিভাগের নিকট।

Leave a Reply

%d bloggers like this: