আর কয়েক দিন পরই বড়দিনের উৎসব

নিউজগার্ডেন ডেস্ক, ২৩ ডিসেম্বর, শুক্রবার: আর কয়েক দিন পরই বড়দিনের উৎসব। খ্রিস্টান ধর্মাবলম্বীদের এ উৎসব অন্যদেরও এনে দেয় আনন্দের উপলক্ষ। রাজধানী ঢাকার অভিজাত হোটেলগুলো এর জন্য এখন প্রস্তুত হচ্ছে। চলুন জেনে নেই তাদের বড়দিনের আয়োজনের বিশদ।
বড়দিন আর নতুন বছর উদযাপন উপলক্ষে প্যান প্যাসিফিক সোনারগাঁও হোটেলে আছে বিশেষ আয়োজন। এই হোটেলের লবি ক্রিসমাস ট্রি, ঘুড়ি আর রকমারি বাতি দিয়ে সাজানো হয়েছে। এখানে ক্যাফে বাজারে রয়েছে নানা রকম খাবার। বড়দিনে অতিথিদের জন্য থাকছে ডিজে শো, পুতুল নাচ আর ম্যাজিক শো। ১৮ ডিসেম্বর থেকে শুরু হয়েছে ঘুড়ি বেচাবিক্রি, যা ২৫ ডিসেম্বর পর্যন্ত চলবে। এই হোটেলের আউটলেটে ক্রিসমাস কেক ও পেস্ট্রির ব্যবস্থাও আছে।
লা মেরিডিয়ান হোটেলে শিশুদের জন্য আছে মজার মজার আয়োজন। এখানে ছাদের সুইমিংপুল এরিয়ায় তারা দৌড়ঝাঁপ করে আনন্দ করতে পারবে এক হাজার ৫০০ টাকায়। সঙ্গে বড়রাও থাকতে পারবে, তবে দিতে হবে একই মূল্য। সেখানে শিশুদের খাবারে থাকবে বিভিন্ন স্ন্যাক্স, হটডগ, মিনিবার্গার, ক্যান্ডি ক্লস, ফ্লক্স, পপকর্ণ, ঝালমুড়ি, পাফিন, কাপকেকসহ বিভিন্ন রকম সফ্ট ড্রিংস। এখানে থাকবে বিভিন্ন গেমস, ম্যাজিক শো, ভেন্টিলো কুইজম, বেলুন শো, বল হাউস ও ফেস পেইন্টিংয়ের ব্যবস্থা। তবে ছোটবড় সবার জন্যই বড়দিনে এখানে দেশি-বিদেশি বিশেষ ধরনের খাবারের আয়োজন থাকছে।
দ্য ওয়েস্টিন ঢাকা বড়দিনকে বরণ করতে নানা আয়োজন রেখেছে। এই দিন সামনে রেখে অতিথিদের উষ্ণ অভ্যর্থনা জানানো হচ্ছে। সেখানে প্রথমেই সান্তা ক্লজ আপনাকে স্বাগত জানাবে। নিচের লবিতে থাকবে ঐতিহ্যবাহী উজ্জ্বল ঝিলমিল ক্রিসমাস ট্রি। প্রতিদিনের মতো খাবারের পাশাপাশি নিচের ক্যাফেতে ক্রিসমাস চকলেট হাউস, চকলেট সান্তা, ক্রিসমাস ফ্লসসহ ক্রিসমাস বিস্কুট, ক্রিসমাস লগ, ক্রিসমাস পুডিং থাকবে। থাকবে আদা এবং দারুচিনির তৈরি ক্রিসমাস কুকিজ। ২৪ ডিসেম্বর এখানে পাবেন বিশেষ বুফে ডিনার।
ইতালিয়ার প্রেগো রেস্তোরাঁয় রয়েছে প্রতিজনের জন্য ৫ হাজার টাকায় ডিনার। আর বড়দিন ২৫ ডিসেম্বরের জন্য রেস্তোরাঁটি সেট ম্যানু করেছে মাত্র ৭ হাজার ৫০০ টাকায়। সেখানে থাকবে ক্রিসমাস টার্কি রোস্ট, পেস্তা ও অলিভে ভাজা ল্যাম্ব চপ। থাকবে ক্রিসমাস ফ্রুটকেকসহ হরেক পদের ডিশ। এদিন প্রতিজনের জন্য লাঞ্চ পাওয়া যাবে ৪ হাজার ও ডিনার ৫ হাজার টাকায়।
র‌্যাডিসন ব্লু ঢাকা সবসময় কেক মিক্সিং অনুষ্ঠান পালন করে থাকে। এটি মূলত খ্রিস্টান পরিবার বা হোটেল ক্যাফের একটি ঐতিহ্যবাহী অনুষ্ঠান। এটি ক্রিসমাস আবহ তৈরিতে বড় ভূমিকা পালন করে থাকে। আপনার সন্তানদের চমক দিতে র‌্যাডিসন মিষ্টি ও মসলাদার সব খাবারের আয়োজন করেছে। আকর্ষণীয় মজাদার সব খাবারের সঙ্গে জিঞ্জার ব্রেড হাউসও সেখানে বিক্রির জন্য থাকবে, যা আপনি বাড়িতে নিয়ে যেতে পারবেন।
বড়দিন থেকে শুরু হয়ে বছরের শেষ দিন পর্যন্ত আলোকোজ্জ্বল থাকবে পুরো হোটেলের বাইরের অংশ। হোটেল লবিতে থাকবে বড় ক্রিসমাস ট্রি। বৃষ্টিস্নাত হরিণসহ আরো অনেক কিছুই সেখানে সজ্জিত করা হবে। পুরো সময়ই ক্রিসমাসের মিউজিক বাজতে থাকবে। সেখানে লাইভ ক্রিসমাস ক্যারোল বাজাবেন বাদ্যযন্ত্রীরা। আর সান্তা ক্লজ সব রেস্টুরেন্টেই ঘুরে ঘুরে পরিদর্শন করবেন, দেখা করবেন আপনার শিশুর সঙ্গে।
৩ হাজার ৪৫০ টাকায় বড়দিনের আগে ২৪ ডিসেম্বর পাবেন তার্কিস ফুডসহ সুস্বাদু ডিনার। বড়দিনে প্রতিজন পাবেন ৪ হাজার ৯০০ টাকায় স্পেশাল লাঞ্চ এবং ডিনার। আর ছোটরা পাবে মাত্র ২ হাজার ৫০০ টাকায়। দুপুর ১২টা ৩০ মিনিট থেকে ৪টা পর্যন্ত লাঞ্চ টাইম ও সন্ধ্যা ৬টা ৩০ মিনিট থেকে রাত ১২টা পর্যন্ত ডিনারের সময় নির্ধারণ রয়েছে।

২৪ ও ২৫ ডিসেম্বর বিশেষ বুফে লাঞ্চ ও ডিনার তারা উপস্থাপন করছে। তাদের ছাদের ওপর গার্ডেন রেস্তোরাঁয় অতিথিরা উপভোগ করতে পারবেন খোলা আকাশের নিচে ডিনার। যেখানে তাদের বিশেষ শেফ খাবার তৈরি করে খাওয়াবেন। চারপাশে বাজবে সুন্দর বাদ্যযন্ত্রের আবহ। সেদিন এসএ টিভিতে সরাসরি সম্প্রচার করা হবে রেজিন্সির ছাদের এই বিশেষ হোটেল আয়োজন। শিশুদের জন্য রয়েছে সেদিন বিশেষ গেম জোন।
যেখানে তারা বিভিন্ন মজার সব গেম খলতে পারবে, ছবি তুলতে পারবে সান্তা ক্লজের সঙ্গে। ছোট ট্রেনে রয়েছে মজার ভ্রমণ। এছাড়া সেখানে থাকবে জাম্পিং গেম। শিশুরা খেতে পারবে বার্গার, ফ্রাই, কেক, ক্যান্ডি ফ্লস ও চটপটি। সন্ধ্যায় একটি সান্তা ক্লজের মাধ্যমে কেক কাটার মধ্য দিয়ে অনুষ্ঠানটি শুরু হবে। এদিন লাঞ্চ ও ডিনার মাত্র ২ হাজার ৯৯৯ টাকায় পাওয়া যাবে।

Leave a Reply

%d bloggers like this: