আজ জাতীয় কবি কাজী নজরুলের ১১৮তম জন্মবার্ষিকী

নিউজগার্ডেন ডেস্ক, ২৫ মে ২০১৭, বৃহস্পতিবার: দূর্গম পথের দুঃসাহসী যাত্রী তিনি, বিদ্রোহী সত্তার স্রষ্টা। মানুষের হৃদয়ে জাগিয়েছেন মুক্তির আকাক্সক্ষা। ঔপনিবেশিক শাসনের বিরুদ্ধে বেছে নিয়েছেন বিদ্রোহের পথ। তবে তার দ্রোহ আর সমস্ত সৃষ্টি উৎসারিত হয়েছে প্রেমিক সত্তা থেকেই।
তিনি বিদ্রোহী কবি, তিনি প্রেমিক কবি। তিনি আমাদের জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলাম। বৃহস্পতিবার (২৫মে) জাতীয় কবি কাজী নজরুলের ১১৮তম জন্মবার্ষিকী। কবির জন্মতিথিতে তাকে আপন করে পাবার এই আয়োজন।
ঔপনিবেশিকতার নিষ্পেষণে যখন ভারতবর্ষ জর্জরিত, তখন বাঙালির জীবনে ধুমকেতুর মতো আবির্ভাব হয় কাজী নজরুল ইসলামের। দুঃখই ছিল তার চির সঙ্গী। তবে দারিদ্রের কশাঘাতে দমে যাননি দুখুমিঞা। বরং বিপ্লবী লেখনি দিয়ে কাঁপিয়ে দিয়েছিলেন ব্রিটিশ রাজ্যের ভিত।
সাম্প্রদায়িকতার বিষবাষ্প যেখানে ছড়িয়ে পড়ছে সারাবিশ্বে, সেখানে অসাম্প্রদায়িক নজরুলের চেতনা দিতে পারে মুক্তি এমনটাই মনে করছেন নজরুল গবেষক ও শিল্পীরা।
কবি নজরুল গেয়েছেন মানবমঙ্গলের গান। মানবতার ধর্মকে আপন করে নিতে পারলেই সংকটের প্রকৃত সমাধান মিলবে বলে মনে করেন নজরুল গবেষকরা।
মাত্র ২২ বছর শিল্প সৃষ্টিতে সক্রিয় থাকতে পেরেছিলেন। দ্রোহ আর প্রেম সত্তার নিবিড় যোগ নজরুল কাব্যে স্বতন্ত্র মাত্রা যোগ করেছে। তার কাব্যে আবার দেখতে পাই ব্যর্থ প্রেমের ছবি। তবে বিরহে এ ব্যর্থতা তিক্ত হয়ে উঠে তা নয়। এ বিরহ বোধ জীবনের এক অতুলনীয় অভিজ্ঞতা। জীবন যেন পরম সমৃদ্ধ হয় বিরহের স্পর্শে। জীবন এবং জগত সম্পর্কে ব্যাপকতর যে বোধের দিশা দিয়েছেন তিনি। তা এখনো ভালবাসায় পূর্ণ সমৃদ্ধ জীবনের সন্ধান দিতে পারে।
গানের পাখি নিরুদ্দেশ হাওয়ায় হাওয়ায়। তবে নজরুলকে আমরা এখনো খুঁজে ফিরি, আমাদের গভীর প্রেমে কিংবা দ্রোহের অন্ধ গলিতে। যেখানে একান্ত হৃদয়ের পরম সাথী কাজী নজরুল ইসলাম।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*