আগুন লাগলেই দৌড়ে আসে ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা

নিউজগার্ডেন ডেস্ক, ৪ মে ২০১৭, বৃহস্পতিবার: আগুন লাগলেই দৌড়ে আসে ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা। অন্যের জীবন আর সম্পদ বাঁচানোর চেষ্টায় প্রায়ই নিজের নিরাপত্তার দিকটি দেখার খেয়াল থাকে না। আর পরের জন্য ২০১১ থেকে ২০১৬ সালের মধ্যে বাংলাদেশে অন্তত ১০ জন ফায়ার ফাইটার জীবন দিয়েছেন। একই সময় আহত হয়েছেন আরও ১৯ জন।
ফায়ার সার্ভিস অ্যান্ড সিভিল ডিফেন্স অধিদপ্তরের মহাপরিচালক আলী আহাম্মেদ খান বৃহস্পতিবার এই তথ্য জানিয়েছেন। আন্তর্জাতিক ফায়ার ফাইটার্স ডে উপলক্ষে সকাল ১০ টায় মিরপুরের ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্স ট্রেনিং আয়োজিত আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে অংশ নিয়েছিলেন তিনি।
বাংলাদেশে যেসব সরকারি সংস্থা আছে তার মধ্যে সবচেয়ে কম বিতর্ক আছে দমকল বাহিনী নিয়ে। কখনও কখনও আগুন লাগার পর তারা কিছুটা দেরিতে পৌঁছার অভিযোগ আসে। তবে বাহিনীটির কর্মীরা জানান, এটাও তাদের নিজেদের দায়িত্বে অবহেলার জন্য হয় না। রাস্তায় যানজট থাকে, কখনও কখনও রাস্তা থাকে সরু, সেখানে বড় গাড়ি নিয়ে যাওয়া যায় না। এসব সীমাবদ্ধতা অতিক্রম করেই সাধ্যের সর্বোচ্চটাই তারা দিয়ে যাচ্ছেন।
ফায়ার সার্ভিসের মহাপরিচালক বলেন, ‘ফায়ার ফাইটাররা নিজের জীবনবাজি রেখে প্রতিনিয়ত জীবন ও সম্পদ রক্ষা করে যাচ্ছে।’ তিনি বলেন, ‘অন্য যে কোনো সময়ের চেয়ে বর্তমানে ফায়ার ফাইটারগণ তাদের সক্ষমতা অর্জন করেছে। আমাদের ফায়ার ফাইটাররা যেকোনো দুর্ঘটনা দূর্যোগে কাজ করার জন্য সর্বদা  প্রস্তুত রয়েছে।’
ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্স অধিদপ্তরের পরিচালক (পরিকল্পনা, উন্নয় ও প্রশিক্ষণ) মোশারফ হুসেনের সভাপতিত্বে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রনালয়ের অতিরিক্ত সচিব প্রদীপ রঞ্জন চক্রবর্তী। ইউএনডিপির যেপুটি কান্ট্রি ডিরেক্টর খোরশেদ আলম, আন্তর্জাতিক সংস্থা আইএলওর ফায়ার এক্সপার্ট মরিস ব্রুক্স। আলোচনায় আরও বক্তব্য রাখেন স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের ট্রেনিং কমপ্লেক্সের অধ্যক্ষ মোজম্মেল হক, সহকারী পরিচালক সুভাস চন্দ্র দেবনাথ, এডজুটেন্ড আনোয়ার হোসেন, সদস্য  শামিম ভূইয়া, রমিজ উদ্দিন, মকবুল হোসেন প্রমুখ।
আলোচনায় দমকল বাহিনীর নানা সীমাবদ্ধতা তুলে ধরে সেগুলোর সমাধানের সুপারিশ করেন বক্তারা। মোজম্মেল হক বলেন, ড্রাইভারের সংখ্যা খুব কম, বাহিনীর সব সদস্যের জন্য ফায়ার স্যুটও নেই। এগুলো না থাকলে কাঙ্ক্ষিত সেবা দেয়া কঠিন। তিনি দমকল কর্মীদের কর্মঘণ্টা কমিয়ে আট ঘন্টা নির্ধারণ, চাকরিতে পোষ্যকোটা চালু ও  ঝুঁকি ভাতা দেয়ার দাবি করেন।

Leave a Reply

%d bloggers like this: