আওয়ামীলীগ ২৫৯, জাতীয় পার্টি ২০ ও বিএনপি ৫ আসন

নিউজগার্ডেন ডেস্ক, ৩১ ডিসেম্বর ২০১৮ ইংরেজী, সোমবার: ইসি সচিব একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের ২৯৯টি আসনের মধ্যে ২৯৮টি আসনের ফল ঘোষণা করেছে নির্বাচন কমিশন (ইসি)। আগারগাঁওস্থ নির্বাচন ভবন চত্ত্বরে সোমবার ভোর চারটার দিকে দল ভিত্তিক ফলাফলা ঘোষণা করেন ইসি সচিব হেলালুদ্দীন আহমদ। তিনি বলেন, প্রার্থীর মৃত্যুজনিত কারণে একটি আসনের ভোটা স্থগিত করা হয়েছে। যেটি ২৭ জানুয়ারি অনুষ্ঠিত হবে।
এছাড়া আরেকটি আসন ব্রাহ্মণবাড়িয়া-২ আসনে তিনটি কেন্দ্রের ভোট স্থগিত থাকায় ২৯৮টি আসনের ফলাফলা ঘোষণা করা হচ্ছে। এরমধ্যে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ নৌকা মার্কা ২৫৯টি সিট, জাতীয় পার্টি লাঙ্গল ২০, বিএনপি ধানের শীষ ৫, গণফোরাম ২, বিকল্পধারা বাংলাদেশ ২, জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল (জাসদ) ২, বাংলাদেশ ওয়ার্কার্স পার্টি ৩, তরিকত ফেডারেশন ১টি, জাতীয় পার্টি (জেপি) ১ এবং স্বতন্ত্র প্রার্থী ৩টি আসনে জয় লাভ করেছে। তিনি বলেন, ১০টি ব্যতিত বাকিগুলো সব মহাজোটের। মহাজোট ২৮৮টি আসন পেয়েছে। এর আগে সাড়ে তিনটায় ফলাফল ঘোষণা শেষ হওয়া পর ইসি সচিব বলেন, রাজনৈতিক সরকারের অধীনে অনুষ্ঠিত একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন দেশের গণতন্ত্রের ইতিহাসে উজ্জ্বল দৃষ্টান্ত হয়ে থাকবে বলে মন্তব্য করেছেন নির্বাচন কমিশন সচিব হেলালুদ্দীন আহমদ। একই সঙ্গে তিনি বিপুল জয়ের জন্য ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগকে অভিনন্দন জানান। রবিবার দিবাগত রাত ৩টার পরে আসনভিত্তিক ফলাফল ঘোষণার শেষে তিনি এ অভিনন্দন জানান। ইসি সচিব বলেন, বাংলাদেশের ইতিহাসে প্রথমবারের মত রাজনৈতিক সরকারের অধীনে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়েছে। অত্যন্ত সুন্দর পরিবেশে ও শান্তিপূর্ণ পরিবেশে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়েছে। দেশিবিদেশী পর্যবেক্ষরা এই নির্বাচনে সন্তুষ্টি প্রকাশ করেছেন। নির্বাচন কমিশনও এই নির্বাচনে সন্তোষ প্রকাশ করেছেন। প্রধান নির্বাচন কমিশনার বলেছেন ছোটখাট অনিয়ম ব্যতিত নির্বাচন সুন্দর ও শান্তিপূর্ণ হয়েছে। তিনি বলেন, নির্বাচন আমাদের জাতীয় জীবনের জন্য বড় ইভেন্ট। এই নির্বাচন জাতীয় জীবনের জন্য উজ্জ্বল দৃষান্ত হয়ে থাকবে। একটি নির্বাচিত রাজনৈতিক সরকারের অধীনে নির্বাচন অনুষ্ঠানের মাধ্যমে গণতান্ত্রিক ধারাবাহিক প্রক্রিয়ার মধ্যে এই নির্বাচন উজ্জ্বল দৃষ্টান্ত হয়ে থাকবে। নির্বাচনী কার্যক্রমে সহযোগিতা ও বিপুল জয়ের জন্য তিনি আওয়ামী লীগকে অভিনন্দন জানান। সংসদ নির্বাচনে ইভিএম চালু প্রসঙ্গে তিনি বলেন, এবারে প্রথমবারের মত ৬টি আসনে পরীক্ষামুলকভাবে ইভিএম ব্যবহার করেছি। এতে অনেক মানুষের মধ্যে কৌতুহল ও আগ্রহের পাশাপাশি ভীতিও ছিলো। এটা নিয়ে বিতর্কও ছিলো নবকিছু ওভারকাম করে ইভিএম অত্যন্ত সফলভাবে ব্যবহার করতে পেরেছি। এই প্রযুক্তি আগামি যত নির্বাচন আসবে সেখানে আমরা ব্যবহার করবো। প্রত্যন্ত এলাকা থেকে ফলাফল আনতে হওয়ার কারণে আমাদের একটু দেরি হয়েছে। ভবিষ্যতে ইভএমে ফলাফল আরো দ্রুত দেয়া হবে। সচিব বলেন, আমাদের আরকেটি বড় দায়িত্ব হচ্ছে ফলাফলের গেজেট প্রকাশ করা। এই গেজেট প্রকাশ হলে তা মাননীয় স্পিকারের কাছে হস্তান্তর করবো। তিনি এর পরবর্তী কার্যক্রম শুরু করবেন। সংসদ সদস্যদের শপথ গ্রহনের মাধ্যমে নতুন সরকার গঠনের প্রক্রিয়া শুরু হবে।

Leave a Reply

%d bloggers like this: