আইইবি চট্টগ্রাম কেন্দ্রে ইঞ্জিনিয়ার্স ডে উপলক্ষে র‌্যালি

নিউজগার্ডেন ডেস্ক, ৭ মে ২০১৭, রবিবার: ইঞ্জিনিয়ার্স ইন্সটিটিউশন, বাংলাদেশের (আইইবি) ৬৯তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর ‘ইঞ্জিনিয়ার্স ডে’ উদযাপন উপলক্ষে আজ সকালে (০৭/০৫/১৭) আইইবি- চট্টগ্রাম কেন্দ্রের উদ্যোগে একটি বর্ণাঢ্য র‌্যালি নগরীর গুরুত্বপূর্ণ সড়ক প্রদক্ষিণ করে।
র‌্যালি উদ্বোধন করেন- আইইবি চট্টগ্রাম কেন্দ্রের চেয়ারম্যান প্রকৌশলী সাদেক মোহাম্মদ চৌধুরী। পরে কেন্দ্রের চেয়ারম্যান,  ভাইস চেয়ারম্যান (একা. এন্ড এইচ আরডি) প্রকৌশলী এম এ রশীদ, ভাইস চেয়ারম্যান (এডমিন) প্রকৌশলী উদয় শেখর দত্ত ও কেন্দ্রের সম্মানী সম্পাদক প্রকৌশলী প্রবীর কুমার সেনের নেতৃত্বে র‌্যালিটি ইঞ্জিনিয়ার্স ইন্সিটিটিউশন প্রাঙ্গন থেকে বের হয়ে নগরীর কাজীর দেউড়ি, আলমাস সিনেমা হল, ওয়াসা, লালাখান বাজার ঘুরে আবার আইইবি চট্টগ্রাম কেন্দ্রে ফিরে আসে।র‌্যালিতে অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন আইইবি চট্টগ্রাম কেন্দ্রের প্রাক্তন চেয়ারম্যান প্রকৌশলী এ এ এম জিয়া হোসাইন, প্রকৌশলী জ.স.ম. বখতিয়ার, প্রকৌশলী মো. দেলোয়ার হোসেন পিইঞ্জ., প্রকৌশলী মনজারে খোরশেদ আলম, প্রাক্তন ভাইস চেয়ারম্যান এ.এস.এম. নাসির উদ্দিন চৌধুরী পিইঞ্জ. ও কেন্দ্রের সম্মানীত কাউন্সিল সদস্য এবং অন্যান্য প্রকৌশলীবৃন্দরা।  এর আগে সকালে আইইবি চট্টগ্রাম কেন্দ্রে আইইবির সদস্যরা ইঞ্জিনিয়ার্স ডে উপলক্ষে প্রকৌশল বিজ্ঞানের অগ্রযাত্রায় সদা সচেষ্ট থাকা, স্ব স্ব অবস্থান থেকে নিষ্ঠা ও দায়িত্ব শীলতার সাথে কর্তব্য কাজ সম্পাদন করার প্রত্যয় ব্যক্ত করে শপথ পাঠ করেন। র‌্যালি উদ্বোধনের সময় বক্তারা বলেন, প্রকৌশল বিজ্ঞানের উন্নতির জন্য প্রকৌশলীরা প্রত্যেকে নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছেন। একই সঙ্গে দেশের উন্নয়ন কর্মকা-ের সঙ্গে সঙ্গতি রেখে প্রত্যেক প্রকৌশলী নিজেদের মেধা ও কৌশল প্রয়োগ করে উন্নয়ন কার্যক্রম এগিয়ে নিয়ে যাচ্ছেন। তারা বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ঘোষিত ২০২১ ও ২০৪১ সালের লক্ষ্য অর্জন করতে হলে  প্রকৌশলীদের  সামনের কাতারে এসে নেতৃত্ব দিতে হবে। একই সাথে সকল কর্মযজ্ঞে আন্তরিকতা নিয়ে ঝাঁপিয়ে পড়তে হবে। ২০৪১ সালের লক্ষ্য অর্জনে টেকসই উন্নয়নের মাধ্যমে বাংলাদেশ গড়ার আহ্বান জানিয়ে প্রকৌশলী নেতৃবৃন্দ বলেন, আগামী প্রজন্ম বাংলাদেশকে বিশ্বের কাছে একটি সমৃদ্ধ বাংলাদেশ হিসাবে উপস্থাপন করবে। এজন্য এখন থেকে তাদের সঠিক নেতৃত্ব দিয়ে এগিয়ে নিয়ে যেতে হবে। আর সমৃদ্ধ দেশ গড়ার কাজে তাদের যুক্ত করতে হবে। তারা বলেন, বাংলাদেশের পরবর্তী প্রজন্ম ক্ষুধা, দারিদ্রতা, দুর্যোগপ্রবণ কোনো বাংলাদেশের পরিচয় বহন করবে না। তারা হবে এমন বাংলাদেশের নাগরিক যে দেশের উন্নয়নের মডেল দেখে গোটা পৃথিবী সমীহ করবে। প্রকৌশলী নেতৃবৃন্দ বঙ্গবন্ধু কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে সকল দলমতের উর্ধ্বে উঠে ২০২১ ও ২০৪১ সালের লক্ষ্য অর্জনে একযোগে কাজ করার আহ্বান জানান।

Leave a Reply

%d bloggers like this: