অবশেষে মৃত্যুর কোলে ঢলে পড়ল মিরসরাইয়ের রাকিব

নিউজগার্ডেন ডেস্ক : দশ দিন সীমাহীন যন্ত্রণায় ছঁফট করে অবশেষে মৃত্যুর কোলে ঢলে পড়ল মিরসরাইয়ের এক ছাত্রদল কর্মী। তার নাম আলা উদ্দিন রাকিব (১৯)। মঙ্গলবার গভীর রাতে সে চমেক হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মৃত্যু বরণ করে। এর আগে নিজ দলের নেতাকর্মীরা হাতুড়ী দিয়ে পিটিয়ে ও রগ কেটে তাকে আহত করে। সে উপজেলার ২ নম্বর হিঙ্গুলী ইউনিয়নের ধুমঘাট হাজী চাঁন মিয়া বহুমুখী উচ্চ বিদ্যালয়ের ব্যবসায় শিক্ষা শাখা বিভাগের এসএসসি পরীক্ষার্থী। 31.12.14-mir chatradolতার বাড়ী হিঙ্গুলী ইউনিয়নের মেহেদী নগর এলাকায়। নিহত এসএসসি পরীক্ষার্থী আলা উদ্দিন রাকিবের বাবা মোঃ মকছুদ জানান, প্রায় ১০ দিন পূর্বে বারইয়ারহাট এলাকার মিজান নামের এক যুবকের সাথে রাকিবের তর্কাতর্কি হয়। গত সোমবার রাতে মিজানের নেতৃত্বে সন্ত্রাসীরা রাকিবকে হাতুড়ী দিয়ে পিটিয়ে নির্মমভাবে আঘাত করে। পরে আহত অবস্থায় প্রথমে মস্তাননগর এবং পরে চট্টগ্রাম মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নেওয়া হয়। সেখানে মঙ্গলবার রাতে রাকিব মারা যায। নিহত ছাত্রদল কর্মী আলা উদ্দিন রাকিবের ফুফাত ভাই শামছুর রহমান নয়ন জানান, রাকিব ছাত্রদলের মিরসরাই উপজেলা বিএনপির সাবেক সাধারণ সম্পাদক উপজেলা চেয়ারম্যান নুরুল আমিন গ্র“পের একনিষ্ঠ কর্মী ছিলো। সে বারইয়ারহাট পৌরসভা বিএনপি নেতা দিদারুল আলম মিয়াজীর নেতৃত্বে দলীয় কর্মসূচীতে অংশ গ্রহন করতো। তার সক্রিয়তা একই গ্র“পের অনান্য ছাত্রদল কর্মীরা সহ্য করতে পারত না। গত ২৯ ডিসেম্বর সোমবার রাত ১০টার দিকে বারইয়ারহাট পৌর বাজারের আল আমিন গলির আলোকন লাইব্রেরীর সামনে একই গ্র“পের ছাত্রদল কর্মী মিজান, মিনহাজ উদ্দিন টিটু, রায়হান, সায়েদ, রিংকু সহ অন্যন্যরা তাকে হাতুড়ী দিয়ে পিটিয়ে মারাত্মকভাবে আহত করে। এরপর তাকে সিএনজিতে উঠিয়ে নিয়ে যায়। এসময় তারা রাকিবকে হাতুড়ি দিয়ে বুকে বেদড়ক পিটাতে থাকে। তার বাম পায়ের রগ কেটে, বাম হাতের উপরের তালু থেকে ধারালো চুরি দিয়ে মাংস তুলে নেয়। পরে তাকে সিএনজি থেকে জোরারগঞ্জ বাজারের গরু জবাই করার স্থানের পাশে নিক্ষেপ করে। পরে স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে যায়। খুনের ঘটনায় রাকিবের বাবা মকছুদ মামলা দায়েরের প্রস্তুতি নিচ্ছেন বলেও জানান তার ফুফাত ভাই নয়ন। এ বিষয়ে বারইয়ারহাট পৌর বিএনপি নেতা দিদারুল আলম মিয়াজী জানান, রাকিব ছাত্রদলের কর্মী ও আমাদের সাথে মিটিং মিছিলে যেতো। জোরারগঞ্জ থানার ওসি লিয়াকত আলী জানান, ঘটনাটি শুনেছি। ওরা এখনো লিখিত অভিযোগ থানায় করেনি। আমরা খবর দি্িছ অভিযোগ করার জন্য। তাহলে আমরা আইনগত ব্যবস্থা নিব।

Leave a Reply

%d bloggers like this: