অধিকাংশ বাণিজ্যিক ব্যাংকের পরিচালন মুনাফা বেড়েছে

নিউজগার্ডেন ডেস্ক, ৩০ ডিসেম্বর ২০১৮ ইংরেজী, রবিবার: দেশে বিনিয়োগে ভাটার টান থাকলেও বছর শেষে অধিকাংশ বাণিজ্যিক ব্যাংকের পরিচালন মুনাফা বেড়েছে। মুদ্রাবাজারে টাকার প্রবাহও ছিল অনেক বেশি। তবে ঋণ প্রবৃদ্ধি প্রত্যাশার তুলনায় ছিলো কম। তবে সামষ্টিক অর্থনীতি স্থিতিশীল এবং আমদানির পরিমাণ বাড়লে রফতানির তেমন প্রবৃদ্ধি হয়নি। তারপরও ব্যাংকগুলো আগের বছরের চেয়ে বেশি মুনাফা করেছে।
প্রতি বছরের ৩০ ডিসেম্বর বার্ষিক হিসাবায়ন চূড়ান্ত করা হলেও এবছর ৩০ ডিসেম্বর একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের দিন নির্ধারণ হওয়ায় ব্যাংকগুলোর বার্ষিক হিসাব চূড়ান্তের সময় তিনদিন এগিয়ে ২৭ ডিসেম্বর করে বাংলাদেশ ব্যাংক। তারপরও নির্ধারিত সময়ে অধিকাংশ ব্যাংকই বার্ষিক হিসাবায়ন চূড়ান্ত করতে পারেনি।
চতুর্থ প্রজন্মের সাউথ-বাংলা এগ্রিকালচার অ্যান্ড কমার্স (এসবিএসি) ব্যাংকের ২০১৮ সালে ২০৫ কোটি টাকা পরিচালন মুনাফা করেছে, এর আগের বছরে এই ব্যাংকের মুনাফা ছিল ১৮২ কোটি টাকা। সে হিসেবে চলতি বছরে ব্যাংকের মুনাফা বেড়েছে ২৩ কোটি টাকা বা ১২ দশমিক ৬৩ শতাংশ।
বেসরকারি খাতের সাউথইস্ট ব্যাংকের পরিচালন মুনাফা হাজার কোটি ছাড়িয়েছে। ২০১৭ সালে ব্যাংকটির পরিচালন মুনাফা ছিল ৯০৬ কোটি টাকা।
শাহজালাল ইসলামী ব্যাংক মুনাফা করেছে ৪৭৫ কোটি টাকা। ২০১৭ সালে ব্যাংকটির পরিচালন মুনাফা ছিল ৩৫৮ কোটি টাকা।
এক্সিম ব্যাংকের পরিচালন মুনাফার পরিমাণ দাঁড়িয়েছে ৭০০ কোটি টাকার বেশি। ২০১৭ সালে ব্যাংকটি ৫৯৫ কোটি টাকার পরিচালন মুনাফা করেছিল।
ফারমার্স ব্যাংক ছাড়া ভালো পরিচালন মুনাফা পেয়েছে নতুন প্রজন্মের ব্যাংকগুলোও।
মধুমতি ব্যাংক চলতি বছর ২০০ কোটি টাকার বেশি মুনাফা করেছে। ২০১৭ সালে ব্যাংকটির মুনাফা ছিল ১৪৬ কোটি টাকা।
ন্যাশনাল ক্রেডিট অ্যান্ড কর্মাস ব্যাংক লিমিটেডের পরিচালন মুনাফার পরিমাণ দাঁড়িয়েছে ৬৫৫ কোটি টাকায়। ২০১৭ ব্যাংকটির পরিচালন মুনাফা ছিল ৫৩৫ কোটি টাকা।
প্রিমিয়ার ব্যাংক মুনাফা করেছে ৬১০ কোটি টাকা। ২০১৭ সালে ব্যাংকটির পরিচালন মুনাফা ছিল ৪৫০ কোটি টাকা।
এনআরবি কমার্শিয়াল ব্যাংক মুনাফা করেছে ২০৩ কোটি টাকা।
প্রিমিয়ার ব্যাংকের মুনাফা ১৯২ কোটি থেকে বেড়ে ২২৫ কোটি টাকা হয়েছে। তবে ফার্স্ট সিকিউরিটি ইসলামী ব্যাংকের পরিচালন মুনাফা ২২১ কোটি টাকা থেকে কমে ১২৮ কোটি টাকায় নেমে এসেছে।
সোশ্যাল ইসলামী ব্যাংক লিমিটেড পরিচালন মুনাফা করেছে ২৭৫ কোটি টাকা। ২০১৭ সালের জুন শেষে ব্যাংকটির পরিচালন মুনাফা ছিলো ২৫৫ কোটি টাকা। বেসরকারি খাতের সাউথইস্ট ব্যাংক গত ছয় মাসে পরিচালন মুনাফা করেছে ৪৫৬ কোটি টাকা। ২০১৭ সালের ৩০ জুন পর্যন্ত পরিচালন মুনাফা ছিলো ৪১১ কোটি টাকা।
রাষ্ট্রীয় মালিকানাধীন সোনালী ব্যাংক ২০১৮ সালে মুনাফা করেছে ১ হাজার ৯০০ কোটি টাকা। ২০১৭ সালে সোনালী ব্যাংকের পরিচালন মুনাফা ছিল ১ হাজার ২০৬ কোটি টাকা। অগ্রণী ব্যাংক করেছে ৯০০ কোটি টাকা, ২০১৭ সালে ব্যাংকটির পরিচালন মুনাফা ছিল ৭১৭ কোটি টাকা। ৩৪৫ কোটি টাকা পরিচালন মুনাফা পেয়েছে রাষ্ট্রায়ত্ত্ব রূপালী ব্যাংক।
বাংলাদেশ ডেভেলপমেন্ট ব্যাংক লিমিটেড (বিডিবিএল) পরিচালন মুনাফা পেয়েছে ১১৬ কোটি টাকা। ২০১৭ সালে বিডিবিলের মুনাফা ছিল ১১৫ কোটি টাকা।
পরিচালন মুনাফাই ব্যাংকের প্রকৃত মুনাফা নয়। এর থেকে প্রয়োজনীয় প্রভিশনের পরে যে অর্থ থাকবে তা থেকে করের টাকা আলাদা করার পর নিট মুনাফা বেরিয়ে আসে।
বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশনের (বিএসইসি) নির্দেশনা অনুযায়ী, কোনো ব্যাংক তাদের অনিরীক্ষিত পরিচালন মুনাফা প্রকাশ করতে পারে না। এ কারণে ব্যাংকগুলোর অভ্যন্তরীণ বিভিন্ন সূত্র থেকে পরিচালন মুনাফার এসব তথ্য সংগ্রহ করা হয়েছে।

Leave a Reply

%d bloggers like this: